রংপুর-৩ উপনির্বাচন নিয়ে জাপার পক্ষই সক্রিয়

নিউজ ডেস্ক:    আগামী ৫ অক্টোবর অনুষ্ঠেয় রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচনে দলীয় প্রার্থী মনোনয়ন নিয়েও পৃথক অবস্থান নিয়েছে জাতীয় পার্টির (জাপা) বিবাদমান দুই গ্রুপ। দলটির চেয়ারম্যান দাবিবার রওশন এরশাদসহ তার অনুসারীরা দলীয় প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিতে যাচ্ছেন এরশাদ-রওশনের পুত্র রাহগির আল মাহিরকে (সাদ এরশাদ)। দলের আরেক চেয়ারম্যান দাবিদার জিএম কাদেরসহ তার অনুসারীরা দলের প্রার্থী হিসেবে চূড়ান্ত করেছেন রংপুর মহানগর জাপার সাধারণ সম্পাদক এসএম ইয়াছিরকে। দুই পক্ষই আজ শনিবার আনুষ্ঠানিকভাবে দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করতে যাচ্ছে।

দলীয় প্রার্থী মনোনয়নে জিএম কাদেরের গঠিত আট সদস্য বিশিষ্ট পার্লামেন্টারি বোর্ড গতকাল শুক্রবার বিকালে রাজধানীর বনানীতে রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচনে দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাতকার নিয়েছে। বোর্ডের চেয়ারম্যান জিএম কাদেরের সভাপতিত্বে সাক্ষাতকার গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন না বোর্ডের সদস্য-সচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা। রওশন ও জিএম কাদেরের নেতৃত্বাধীন উভয় পক্ষই রাঙ্গাই দলের মহাসচিব। রাঙ্গা গত পাঁচদিন ধরে নির্দিষ্ট কয়েকজন ছাড়া আর কারও সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন না, এমনকি কারও ফোনও রিসিভ করছেন না।

জিএম কাদেরের নেতৃত্বাধীন জাপার পার্লামেন্টারি বোর্ডে গতকাল তিনজন মনোনয়ন প্রত্যাশী সাক্ষাতকার দিয়েছেন। তারা হলেন- এসএম ইয়াছির, জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য ফখর-উজ-জামান জাহাঙ্গীর ও দলের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব আবদুর রাজ্জাক। আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী এরশাদ-জিএম কাদেরের ভাগনি ড. মেহেজেবুন্নেসা রহমান (টুম্পা) সাক্ষাতকার না দিলেও বোর্ডের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন।

জিএম কাদেরের পক্ষে অবস্থান নেওয়া জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়াউদ্দিন বাবলু জানান, রংপুর উপনির্বাচনে আমাদের প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে। শনিবার ঘোষণা করা হবে। উল্লেখ্য, মনোনয়ন প্রত্যাশী টুম্পা হলেন জিয়াউদ্দিন বাবলুর স্ত্রী। 

অন্যদিকে, রওশন এরশাদের পক্ষে সক্রিয় অবস্থান নেওয়া জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য ফখরুল ইমাম জানান, রংপুর উপনির্বাচনে  রওশন এরশাদের নেতৃত্ব বৃহস্পতিবার গঠিত ১৩ সদস্যের পার্লামেন্টারি বোর্ড বৈঠকে বসে প্রার্থী চূড়ান্ত করে ঘোষণা দেবে।

দলের দুই পক্ষই পৃথক প্রার্থী ঘোষণা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে, তাহলে নির্বাচন কমিশন (ইসি) কোন পক্ষের মনোনীত প্রার্থীকে জাপার প্রার্থী হিসেবে স্বীকৃতি দেবে, ‘লাঙ্গল’ প্রতীত কাকে বরাদ্দ দেওয়া হবে? লাঙ্গল প্রতীক কে পায় সেটিই এখন দেখার বিষয়। 

জাপার চেয়ারম্যান হিসেবে রওশন এরশাদ বৃহস্পতিবারই ইসিকে চিঠি পাঠিয়েছেন। জাপার চেয়ারম্যান হিসেবে তার ছাড়া অন্য কারও স্বাক্ষর গ্রহণ না করতে তিনি ইসিকে অনুরোধ জানান। অন্যদিকে, এরশাদ জীবিত থাকাকালে লাঙ্গল প্রতীক বরাদ্দের জন্য ইসিতে চিঠি দেওয়ার ক্ষমতা দিয়েছিলেন দলের মহাসচিব রাঙ্গাকে। জানা গেছে, রাঙ্গার কাছ থেকে লিখিতভাবে সেই ক্ষমতা দুইদিন আগে নিজের কাছে নিয়েছেন জিএম কাদের।