দুর্নীতি মামলায় জামিন পেলেন পি চিদাম্বরম ও তার ছেলে

নিউজ ডেস্ক:     এয়ারসেল-ম্যাক্সিস দুর্নীতির মামলায় ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী ও কংগ্রেস নেতা পি চিদাম্বরম এবং তার ছেলে কার্তি চিদাম্বরমকে আগাম জামিন দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার দিল্লি আদালত তাদের আগাম জামিন দেন। খবর এনডিটিভির।

এদিকে এদিনই আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় পি চিদাম্বরমের করা আগাম জামিনের আবেদন খারিজ করে দেন সুপ্রিম কোর্ট।

ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই জানায়, ২০০৬ সালে ৩ হাজার ৫০০ কোটি রুপির এয়ারসেল-ম্যাক্সিস চুক্তিতে ওই কোম্পানিকে ৮০০ মিলিয়ন ডলার বিদেশি বিনিয়োগের ছাড়পত্র দেন তৎকালীন অর্থমন্ত্রী চিদাম্বরম। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে গঠিত কমিটি থেকে এ বিষয়ে অনুমোদনের কথা থাকলেও অর্থ মন্ত্রক থেকে অবৈধভাবে অনুমতি দেওয়া হয়।

এর আগে চলতি সপ্তাহের গোড়ায় সিবিআই এবং এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) উভয় পক্ষই যুক্তি দিয়েছিল, গ্রেফতারি থেকে সুরক্ষা পেলে পি চিদাম্বরম এবং তার ছেলে এয়ারসেল-ম্যাক্সিস তদন্তে বাধার সৃষ্টি করবেন।

এদিকে আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় জামিন আবেদন খারিজ করে শীর্ষ আদালত জানান, আগাম জামিনের সুরক্ষা ভেবেচিন্তে প্রয়োগ করা উচিত। ঘটনা ও পরিস্থিতি বিবেচনা করে, আগাম জামিন দেওয়ার মতো উপযুক্ত মামলা নয় এটি।

আদালত জানান, তদন্তকারী সংস্থাকে তার তদন্ত পরিচালনার জন্য পর্যাপ্ত স্বাধীনতা দিতে হবে এবং এই পর্যায়ে আগাম জামিন দেওয়ার সিদ্ধান্ত এই তদন্তকে বাধাগ্রস্ত করতে পারে।

দিল্লি আদালতের রায়ে কিছুটা স্বস্তি পাওয়ার পর কার্তি চিদাম্বরম টুইট করেন, আমরা আংশিক জিতেছি। সিবিআই যদিও অভিযোগ করছে, কোনোভাবেই তদন্তে সহযোগিতা করছেন না পি চিদাম্বরম ও তার ছেলে কার্তি চিদাম্বরম।

বৃহস্পতিবার প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী ও তার ছেলের করা আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তাদের গ্রেফতারি থেকে সুরক্ষা দিয়ে আদালত নির্দেশ দেন, তদন্তকারী সংস্থাকে সহযোগিতা করতে হবে তাদের।

আদালত বলেছেন, গ্রেফতারি এড়াতে তাদের এক লাখ টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে আগাম জামিন দেওয়া হয়েছে। তবে অভিযুক্তদের তদন্তে সহযোগিতা করার নির্দেশ দেওয়া হলো।