স্বল্প সময়ে এত মূল্য জোফরা আর্চারের!

নিউজ ডেস্ক:   জন্ম তার বার্বাডোজে। তিনবার খেলেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ অনুর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে। এরপর দেশটির জাতীয় দলের হয়ে খেলারও কথা ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নাগরিকত্ব নিয়ে ইংল্যান্ডের হয়ে খেলার চেষ্টা চালিয়ে যান জোফরা আর্চার। সেই চেষ্টা সফল হয় তার চলতি বছরের এপ্রিলে এসে। মে মাসে আনুষ্ঠানিকভাবে ইংল্যান্ডের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে আর্চারের।

মে থেকে সেপ্টেম্বর- মাত্র চার মাস। এই চার মাসেই আর্চার নিজেকে এমন এক উচ্চতায় নিয়ে গেলেন, যেটা যে কারো জন্য ঈর্ষণীয়। ইংল্যান্ডের প্রথম বিশ্বকাপ জয়ে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করেন আর্চার। শুধু তাই নয়, চলতি অ্যাশেজ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেই টেস্ট অভিষেক ঘটে গেলো তার।

অর্থ্যাৎ ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলে এখন ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি এবং টেস্টের নিয়মিত সদস্য জোফরা আর্চার। লিডসের হেডিংলিতে যে অবিশ্বাস্য জয় পেয়েছে ইংল্যান্ড, সেখানে এক ইনিংসে ৫ প্লাস উইকেট নেয়ারও কৃতিত্ব দেখিয়েছেন তিনি।

স্বল্প সময়ে এমন অবিশ্বাস্য সাফল্যের পুরস্কারও পেয়ে যাচ্ছেন আর্চার। ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিকপ্রাপ্ত ক্রিকেটারে পরিণত হচ্ছেন তিনি। দ্য টাইমস রিপোর্ট প্রকাশ করেছে, ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) সামনে ক্রিকেটারদের সে কেন্দ্রীয় চুক্তি করতে যাচ্ছে সেখানে টেস্ট এবং সাদা বলের ক্রিকেট- উভয় জায়গাতেই রাখবে আর্চারের নাম।

যে কারণে ক্যারিবীয় বংশোদ্ভূত এই ক্রিকেটার বছরে ১০ লাখ পাউন্ড (প্রায় ১ হাজার ৩০ কোটি টাকা) পারিশ্রমিকপ্রাপ্ত ক্রিকেটার হতে যাচ্ছেন তিনি। আগামী মাসেই ইসিবি তাদের কেন্দ্রীয় চুক্তিভূক্ত খেলোয়াড়দের নাম প্রকাশ করবে বলে জানা গেছে।

এর আগে গত বছর আইপিএলে জোফরা আর্চারকে ৮ লাখ পাউন্ডে (প্রায় ৮২৪ কোটি টাকা) কিনে নিয়েছিল রাজস্থান রয়্যালস। এবার নিজ দেশের ক্রিকেট বোর্ড থেকেও ঈর্ষণীয় বেতন-বোনাস পেতে যাচ্ছেন ক্যারিবীয় বংশোদ্ভূত এই পেসার।

বর্তমানে ১০জন ক্রিকেটার রয়েছেন ইসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে। এদের মধ্য থেকে আদিল রশিদ সম্ভবত আগামী চুক্তি থেকে বাদ পড়তে পারেন। কারণ, তিনি ইংল্যান্ডের টেস্ট স্কোয়াডের জায়গা হারিয়ে ফেলেছেন।

ইংল্যান্ডের টেস্ট অধিনায়ক জো রুট হচ্ছেন বর্তমানে সর্বোচ্চ পারিশ্রমিকপ্রাপ্ত ক্রিকেটার। তিনি টেস্ট এবং সাদা বলে চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটারও বটে। তার পারিশ্রমিক বর্তমানে কিন্তু ১০ লাখ পাউন্ডের কিছু কম। সঙ্গে টেস্ট দলের অধিনায়ক হিসেবে কিছু বোনাস রয়েছে।