বেইজিং দক্ষিণ চীন সাগরে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে, উদ্বিগ্ন যুক্তরাষ্ট্র

নিউজ ডেস্ক: বিতর্কিত দক্ষিণ চীন সাগরে নিজেদের আধিপত্য বিস্তারে এবার পিএলএ তৈরি করছে ‘গ্রেট আন্ডারওয়াটার ওয়্যাল’। পাশাপাশি জাহাজ এবং সাবসারফেস সেন্সরের মধ্যে একটি নেটওয়ার্ক চীন তৈরি করছে বলেও জানা গেছে। এই বিতর্কিত এলাকায় বিদেশি জাহাজের গতিবিধি এবং অন্যান্য সাবমেরিনের ওপর নজর রাখতেও পিএলএ-র সুবিধা হবে বলে জানা যাচ্ছে। যার মধ্য দিয়ে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে বেইজিং। দক্ষিণ চীন সাগরে প্রভাব বিস্তার নিয়ে চীনের এই কার্যক্রমে উদ্বিগ্ন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সামরিক সংঘাতের আশংকা তৈরি হয়েছে ।

প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে বলা যায়, চীন তার হাইনান পাওয়ার গ্রিড ইন্টার কানেকশন প্রজেক্ট সম্পূর্ণ করেছে। সাবমেরিন কেবলটি কিয়ংঝাউ স্ট্রেইট এবং হাইনান প্রদেশের লিনসি আইল্যান্ডের মধ্যে দিয়ে গিয়েছে। তবে পিএলএ-কে তাদের গতি ১০ নটস-এর মধ্যে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি কিয়ংঝাউ স্ট্রেইটের মধ্যে দিয়ে যাওয়ার সময় কোনওরকম ছবিও তুলতে নিষেধ করা হয়েছে। হাইনান স্ট্রেইটে সমস্ত বিদেশি জাহাজের প্রবেশ নিষেধ। অন্যদিকে চীনা জাহাজ সেখানে প্রবেশের ৪৮ ঘণ্টা আগে অনুমতি নিতে হবে। সেইসঙ্গে রাডারের ব্যবহারেও নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তবে প্রয়োজনে বিশেষ অনুমতিতে তা ব্যবহার করা যেতে পারে। উল্লেখ্য, মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা যখন এ অঞ্চলে আমেরিকার প্রভাব আরো জোরদার করার চেষ্টা করছেন, সে সময়ে দক্ষিণ চীন সাগরের একটি বিতর্কিত দ্বীপে চীনের ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন চীন, তার প্রতিবেশী দেশগুলো ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে যুদ্ধের ক্রমবর্ধমান ঝুঁকিকেই তুলে ধরেছে। খবর কলকাতা