অধ্যাপক মলয় কান্তি জোয়ারদ্দার আর নেই

বিজয় চন্দ্র দাস, নেত্রকোণা প্রতিনিধি: নেত্রকোণায় প্রেসার স্ট্রোকে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দুফোরামের জেলা সভাপতি অধ্যাপক মলয় কান্তি জোয়ারদ্দার দুপুরে মৃত্যুবরণ করেছেন। তিনি সুনামগঞ্জ জেলার বাদশাগঞ্জ উপজেলাধীন বাদশাগঞ্জ ডিগ্রী কলেজের বাংলা বিষয়ের সহকারী অধ্যাপক ছিলেন। তিনি স্ত্রী ও এক ছেলে রেখে গেছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল পঞ্চান্ন বছর। আজ বিকেলে বারহাট্টার ডাকবাংলো রোডে পারিবারিক শ্মশানে তার শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হয়।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, তিনি দীঘদিন ধরে উচ্চরক্তচাপ ও গ্যা্স্ট্রিক রোগে ভুগছিলেন। গত শুক্রবার রাতে তিনি বারহাট্টার গ্রামের বাড়িতে বিয়ের নিমন্ত্রন খেয়ে বাসায় আসার পথে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। রাতেই তাকে বারহাট্টা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। আজ সকালে দিকে কিছুটা সুস্থ্য হলেও দুপুরে হঠাৎ রক্তচাপ বেড়ে গিয়ে ঝিমিয়ে পড়েন। কতর্ব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

অধ্যাপক মলয় কান্তি জোয়ারদ্দার একজন সমাজসেবক ছিলেন। তিনি জীবদ্দশায় অসহায় দরিদ্র মানুষের বিপদে আপদে পাশে গিয়ে দাড়াতেন। বাল্যবিবাহরোধ, যৌতুক প্রথা, মাদকসেবন প্রতিরোধ সহ অসংখ্য অসহায়, অসুস্থ্ মানুষের বিভিন্নরকম সেবামূলক কাজে জড়িত ছিলেন। তার মৃত্যুতে জেলা হিন্দুফোরাম, পূজা উদযাপন কমিটি, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ জেলা সাহিত্য পরিষদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন শোক প্রকাশ করেন।

নেত্রকোণা প্রতিনিধি