সুখী-সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়লেই বঙ্গবন্ধুর আত্মা শান্তি পাবেন

মো. নজরুল ইসলাম, ময়মনসিংহ : দেশী বিদেশী ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করলেও তার আদর্শের মৃত্যু ঘটাতে পারেনি। জাতির পিতা চেয়েছিলেন এদেশের গরীব-দুঃখী মেহনতী মানুষের মূখে হাসি ফুটিয়ে একটি সুখী ও সমৃদ্ধশালী দেশ গড়ার। তার সুযোগ্য কণ্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হসিনা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণে একটি উন্নত বাংলাদেশ উপহার দেয়ার জন্য রাতদিন অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। সুখী-সমৃদ্ধশালী সোনার বাংলা গড়লেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আত্মা শান্তি পাবেন বলে মন্তব্য করেছেন ময়মনসিংহের বিভাগীয় কমিশনার মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, এনডিসি।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে বৃহস্পতিবার সকালে বিভাগীয় কমিশনার অফিস আয়োজিত এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন ময়মনসিংহের বিভাগীয় কমিশনার মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, এনডিসি। অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) নিরঞ্জন দেবনাথের সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন স্থানীয় সরকার বিভাগের পরিচালক মোঃ আব্দুল আলীম, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) এ.এইচ এম লোকমান, সহকারী কমিশনার জেবুন নাহার শাম্মি ও সবিতা সরকার, ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম, কালের কণ্ঠের স্টাফ রিপোর্টার নিয়ামুল কবির সজল, বিভাগীয় কমিশনার অফিসের কর্মচারী শাকিল আহমেদ, ফেরদৌসী খাতুন ও আসিফুজ্জামান প্রমূখ। শেষে কাচারী মসজিদের ইমাম মাওলানা আনোয়ার উল্লাহ বঙ্গবন্ধুসহ ১৫ আগষ্ট ও মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের এবং জাতীয় চার নেতার রুহের মাগফেতার কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন।
বিভাগীয় শহর ময়মনসিংহে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) সকাল ৭টায় জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ, শোক র‌্যালী, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল ও দুঃস্থদের মাঝে খাবার বিতরণসহ সিটি কর্পোরেশন, বিভাগীয় ও জেলা প্রশাসন, বিভিন্ন সরকারী দপ্তর এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নানা কর্মসূচী পালন করে।

বৃহস্পতিবার সকালে জেলা প্রশাসন আয়োজিত শোকর‌্যালীতে অংশ নেন ময়মনসিংহের বিভাগীয় কমিশনার মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি, পরিবার পরিকল্পণা বিভাগের পরিচালক মোহাম্মদ আব্দুল আওয়াল, জেলা প্রশাসক মোঃ মিজানুর রহমান, র‌্যাব-১৪ অধিনায়ক লে.কর্ণেল ইফতেখার উদ্দিন, পুলিশ সুপর শাহ আবিদ হোসেন, গণপূর্তের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মোঃ কামরুজ্জামান, জেলা শিক্ষা অফিসার রফিকুল ইসলাম প্রমূখ।


জেলা প্রশাসন আয়োজিত টাউনহলে অ্যাডভোকেট স্মৃতি অডিটরিয়ামে সকালে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে. এম খালিদ বাবু এমপি। জেলা প্রশাসক মোঃ মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন বিভাগীয় কমিশনা মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান এনডিসি, ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি, র‌্যাব-১৪ অধিনায়ক লে.কর্ণেল ইফতেখার উদ্দিন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান প্রমূখ।
আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণকালে সিটি করপোরেশন মেয়র ইকরামুল হক টিটু, সংসদ সদস্য মনিরা বেগম মনি, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুলসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
বিভাগীয় কমিশনার, রেঞ্জ ডিআইজি, জেলা ও পুলিশ প্রশাসন, জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গসংগঠন সহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দফতর ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ছাড়াও পৃথক পৃথকভাবে আলোচনা পবিত্র কোরান খানি ও দোয়া মাহফিল ছাড়াও নানা অনুষ্ঠান পালন করে।