মহেশপুরে স্ত্রীর মর্যাদা পেতে সমাজপতিদের দ্বারে দ্বারে অসহায় এক নারী

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহ: স্ত্রীর মর্যাদা পাওয়ার দাবিতে ঝিনাইদহের মহেশপুরে সমাজ পতিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন অসহায় এক নারী। ওই নারীর নাম নাজমা খাতুন। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পান্তাপাড়া গ্রামের নজরুল ইসলামের মেয়ে নাজমা খাতুনের সঙ্গে একই গ্রামের আবুল গাজীর ছেলে হারুন গাজি প্রেমের সম্পর্কের মাধ্যমে ৩ বছর আগে ঢাকায় নিয়ে বিয়ে করে। বিয়ের পর হারুন নাজমাকে কৌশলে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয় এবং তাকে ঘরে তুলে নিতে টালবাহানা করে।

গত ২২ মার্চ মেয়েটি স্ত্রীর দাবিতে হারুনের বাড়িতে অবস্থান নিলে হারুন কৌশলে বাড়ি থেকে সটকে পড়ে এবং তার পরিবারের লোকজন তাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে। মেয়েটি কোনো উপায় না পেয়ে বাবার বাড়ি ফিরে আসেন। বর্তমানে তিনি বাবার বাড়িতে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। এ বিষয়ে পান্তাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সালিশ বৈঠকে কোনো বিচার না পাওয়ায় তিনি ঝিনাইদহ আদালতে মামলা করেছেন। যার নং-মহেশ জিআর ২১৬/১৯। নাজমা খাতুন জানান, তাকে ঢাকায় নিয়ে যেয়ে বিয়ে করে এখন অস্বীকার করছে। অসহায় দরিদ্র পরিবারের মেয়ে নাজমা খাতুন সঠিক বিচার পেতে মানবাধিকার সংগঠনসহ সরকারের ওপর মহলের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম/জাহিদ।