বিয়ানীবাজার সরকারী কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক ময়নুল ইসলাম লিটন যুক্তরাষ্ট্রে সংবর্ধিত

ছরওয়ার হোসেন, যুক্তরাষ্ট্র থেকে ::
ঐক্য, সৌহার্দ্য, সম্প্রীতি আর বিয়ানীবাজার একে অন্যের পরিপুরক। যা আবারো প্রদর্শিত হলো নিউ ইয়র্কে। রবিবার (২৯ জুলাই) সংক্ষিপ্ত সময়ের ভ্রমনে নিউ ইয়র্কে আগমন করেন বিয়ানীবাজার সরকারী কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক, কারানির্যাতিত সাবেক ছাত্রলীগনেতা এবং কানাডাস্থ কুইবেক বিয়ানীবাজার সমিতির সভাপতি, সমাজসেবী ময়নুল ইসলাম। তার আগমন উপলক্ষে কমিউনিটি সংগঠন সম্প্রীতি’র উদ্যোগে নিউ ইয়র্কের রোজ বেঙ্গল রেষ্টুরেন্টে এক মতবিনিময় অনুষ্টান MEET WITH MOYNUL অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে দলমত নির্বিশেষে সর্বস্থরের বিয়ানীবাজারবাসীর প্রাণবন্ত উপস্থিতি ছিলো অত্যাকর্ষক। অনুষ্ঠান একঘন্টা দেরীতে শুরু হলেও দীর্ঘরাত্রি পর্যন্ত উপস্থিতি ছিলো ব্যাপক। যা ছিলো অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষন। উপস্থিত সুধীমন্ডলীর প্রাণখোলা বক্তব্য ছিলো বিয়ানীবাজারের মাটি ও মানুষের কল্যান চিন্তায় উদ্ভাসিত ও ফেলে আসা দিনের স্মৃতিচাঁরণ। অনুষ্ঠান যেন হয়ে উঠে বাংলাদেশ, কানাডা ও নিউ ইয়র্কের বিয়ানীবাজারবাসীর পারস্পরিক মেলবন্ধনের উপলক্ষ। এছাড়াও সাবেক ছাত্রনেতাদের কন্ঠে উঠে আসে আশির দশকের স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন ও নব্বইয়ের দশকের বিয়ানীবাজারের ছাত্ররাজনীতির সোনালী সময়ের চালচিত্র। সেই সাথে মুরব্বীদের কন্ঠে উঠে আসে নানামূখি প্রতিকুলতাকে পাশ কাঠিয়ে দেশের বর্তমান ও ভবিষ্যত তরুণসমাজকে সোনালী সূর্যোদয়ের পথে তুলে আনার তাগিদ। অনুষ্ঠানের প্রধান আকর্ষন ও সংবর্ধিত অতিথি ময়নুল ইসলাম লিটন দীর্ঘদিন পর রাজনৈতিক জীবনের সহকর্মী, সহযোদ্ধা ও আত্নীয় পরিজনদের একসাথে কাছে পেয়ে আপ্লুত হয়ে উঠেন।
তিনি সকলের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। মইনুল ইসলাম লিটন তার বক্তব্যে এরকম একটি সুন্দর আয়োজন করার জন্য আয়োজকদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি বলেন ছাত্র রাজনীতি করার সময় থেকে মানুষের কল্যাণে কিছু করার যে প্রয়াস আরম্ভ করেছিলাম তা এখনো অব্যাহত রেখেছি। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন আমি যেন মানব কল্যাণে নিজেকে সব সময় নিয়ে যেত রাখতে পারি। সর্বোপরি একটি প্রাণবন্ত উৎসবমুখর পরিবেশে রাতের ডিনার শেষে যখন অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটেছিলো তখন ঘড়ির কাটায় নতুন দিনের একঘন্টা পার হয়ে যায়।

বিয়ানীবাজার উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল কুদ্দুছ টিটুর সভাপতিত্বে এবং বিয়ানীবাজার উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা আমিনুল ইসলামের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নিউ ইয়র্কস্থ জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সভাপতি বদরুল হোসেন খাঁন, অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ছিলেন নিউ ইয়র্কস্থ বিয়ানীবাজার সোসাইটির সভাপতি মোস্তফা কামাল, জালালাবাদ এসোসিয়েশনের ট্রাষ্টি বোর্ড মেম্বার কমিউনিটিনেতা একলিমুজ্জামান নুনু, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল জলিল, বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ময়নুল ইসলাম ও জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য আব্দুন নুর।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্র কৃষকলীগের সভাপতি হাজী নিজাম উদ্দিন, কমিউনিটিনেতা ফখর উদ্দিন, নিউ ইয়র্ক ষ্টেট আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক খসরুজ্জামান খসরু, বিয়ানীবাজার সোসাইটির সাবেক সহসভাপতি গীতিকার গৌছ খান,বিয়ানীবাজার আদর্শ মহিলা কলেজের সাবেক প্রভাষক জালাল আহমেদ, বিয়ানীবাজার সরকারী কলেজের সাবেক প্রভাষক কামাল চৌধুরী, সাবেক তুখোড় ছাত্রনেতা আব্দুল মুছব্বির,
বিয়ানীবাজার সরকারী কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক জি এস ফারুকুল হক, আব্দুল খালিক মায়ন স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক হেলিম উদ্দিন, শহীদ মনু মিয়া স্মৃতি সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আলিম, সাবেক ছাত্রলীগনেতা আব্দুর রশীদ তুলন, সাবেক ছাত্রলীগনেতা মাহবুব আহমেদ, মাথিউরা সমিতির সাধারণ সম্পাদক কমর উদ্দিন, শহীদ নাহিদ ফাউন্ডেশনের সভাপতি ফজলে রাব্বী সেবুল, সাংবাদিক শরিফুল হক মঞ্জু, এবিটিভি ও বিয়ানীবাজার নিউজ 24 ডট কমের পরিচালক আব্দুল আহাদ, শহীদ নাহিদ ফাউন্ডেশনের সহ সভাপতি আমিন উদ্দিন, সাবেক যুবলীগনেতা দেলোয়ার হোসেন, শিপলু আহমদ, ইসমাইল হোসেন, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের যুব সম্পাদক আব্দুল হাদী, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সমাজসেবা সম্পাদক জুয়েল আহমদ, নিউ ইয়র্ক ষ্টেট যুবলীগের আহ্বায়ক রেজাউল আলম অপু, নিউ ইয়র্ক সিটি যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক জুনেদ আহমদ প্রমূখ।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই আয়োজকদের পক্ষ থেকে ছরওয়ার হোসেন কমিউনিটির সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন সম্প্রীতির আত্নপ্রকাশ ঘোষনা করেন। তিনি সকলকে কমিউনিটির রাজনৈতিক ও সামাজিক ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র বিভেদকে পাশ কাটিয়ে সৃজনশীল সামাজিক অনুষ্ঠান আয়োজনে সম্প্রীতিকে মাধ্যম হিসেবে ব্যবহারের জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান। উপস্থিত সকলেই আনন্দচিত্তে এ উদ্যোগের প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করেন।