চমক নিয়ে আসছেন সোহেল তাজ সংবাদ সম্মেলনে ঘোষণা

নিউজ ডেস্ক: সর্বস্তরের মানুষের জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে ভিন্নধর্মী পরিকল্পনা নিয়ে আসছেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও সাবেক এমপি তানজিম আহমদ সোহেল তাজ। তিনি এ কর্মপরিকল্পনাকে নতুন কিছু হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। কী চমক তিনি দেখাবেন সেটা অবশ্য গতকাল বুধবার পর্যন্ত পরিস্কার হয়নি।

সোহেল তাজ আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলের সুরমা মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ কর্মপরিকল্পনা তুলে ধরবেন। তিনি গতকাল বলেন, তার নতুন এ প্রচেষ্টা কোনো রাজনৈতিক প্ল্যাটফরম নয়, সামাজিক উদ্যোগ। এর মধ্য দিয়ে তিনি জাতিকে নতুন কিছু জানাতে চাইছেন, যা মানুষের জন্য হবে একটি উপহার। এটা সমাজের সবদিক উন্নত করার জন্য একটি উন্নত সমাধানের উপায়ও হবে। এ ধরনের উদ্যোগ এর আগে এশিয়ায় হয়নি।

দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী ও জাতীয় চার নেতার অন্যতম তাজউদ্দীন আহমদের ছেলে সোহেল তাজ সম্প্রতি নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে তার নতুন কর্মপরিকল্পনা-সংক্রান্ত একটি টিজার দিয়েছিলেন। ওই টিজারে দেখা গিয়েছিল, দ্রুত জামাকাপড় পরে সোহেল তাজ একটি মাইক্রোবাসে উঠছেন। সেখান থেকে নেমে একটি বন্ধ দরজায় কড়া নাড়ছেন। এরপর মোটরসাইকেল চালিয়ে মাটির দেয়াল ও টিনের ছাউনির একটি বাড়ির সামনে গিয়ে থামেন। সেখানে মানুষের দরজায় কড়া নাড়ার দৃশ্য তুলে ধরে তিনি লিখেছেন, ‘গ্রাম থেকে শহর, টেকনাফ থেকে তেঁতুলিয়া, ইউরোপ থেকে আমেরিকা, মধ্যপ্রাচ্য থেকে এশিয়া, পৃথিবীর যে প্রান্তেই থাকেন না কেন আপনার দরজায় টোকা পড়তে পারে। সোহেল তাজ আসছেন আপনার দরজায়। আপনি রেডি তো?’

গত রোববার আরও একটি টিজার দিয়ে সোহেল তাজ জানান, তিনি ১৮ জুলাই সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিতভাবে বিষয়বস্তু তুলে ধরবেন। এক মিনিট ১৫ সেকেন্ডের এ টিজারে তিনি বলেন, ‘আপনাদের নিশ্চয় স্মরণ আছে যে, আমার ফেসবুক পেজে একটি টিজার ছেড়েছিলাম। সেই টিজারে আপনার দরজায় কড়া নাড়ছিলাম। সে সময় আপনাদের বলেছিলাম যে, খুব শিগগির আপনাদের জানাব বিষয়বস্তুটা কী। আজ আপনাদের সামনে একটি সুখবর নিয়ে এসেছি- সেটি হচ্ছে, বিষয়টি আপনাদের জানাতে আমি প্রস্তুত।’

সোহেল তাজ আরও বলেন, তিনি যে উদ্যোগই নিন না কেন, সেটা সমাজ ও মানুষের কল্যাণে নিয়োজিত থাকবে। তিনি সমাজ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাবেন। একটি সোনার বাংলা গড়ার জন্য, সোনার মানুষ তৈরির লক্ষ্যে কাজ করে যাবেন।

কী থাকছে কর্মপরিকল্পনায় :সোহেল তাজের সংবাদ সম্মেলন আয়োজনের খবরে সব মহলে কৌতূহল ছড়িয়ে পড়েছে। জনকল্যাণকর কী কাজ নিয়ে তিনি হাজির হচ্ছেন?- এমন প্রশ্ন তার নির্বাচনী এলাকা কাপাসিয়া ও গাজীপুরের সর্বত্র ঘুরছে। তার ঘোষণার প্রতীক্ষায় আছেন সবাই।

কারও কারও ধারণা, মানুষজনকে স্বাস্থ্যসচেতন করতেই সোহেল তাজ উদ্যোগী হয়েছেন। অথবা তরুণ প্রজন্মকে মাদকের ভয়াল থাবা থেকে রক্ষার জন্যই তার এ নতুন উদ্যোগ। দুর্নীতি বন্ধে নতুন কোনো উদ্যোগের কথাও জানাতে পারেন তিনি।

সোহেল তাজের ঘনিষ্ঠ সূত্রগুলো জানিয়েছে, তরুণ প্রজন্মকে তাদের ভবিষ্যৎ বিনির্মাণে সহযোগিতা করতে বিভিন্ন স্কুল-কলেজে গিয়ে শিক্ষার্থীদের দুর্নীতি, মাদক, স্বাস্থ্য ও রাজনৈতিক বিষয়ে সচেতন করার কর্মসূচি নিয়ে সাবেক এ স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তার যাত্রা শুরু করতে পারেন। বিভিন্ন বয়সী মানুষকে স্বাস্থ্যসচেতন করার জন্যও তার কোনো উদ্যোগ থাকতে পারে।

কাপাসিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আমানত হোসেন খান বলেন, সোহেল তাজ মঙ্গলবার কাপাসিয়ার একটি আলোচনা সভায় এলে বিষয়টি নিয়ে কথা হয়েছে তার (আমানত) সঙ্গে। তবে সোহেল তাজ তার নতুন পরিকল্পনা নিয়ে কিছুই বলতে চাননি।

দীর্ঘদিন ধরে রাজনীতিতে নিষ্ফ্ক্রিয় সোহেল তাজ সম্প্রতি তার ভাগ্নে সৈয়দ ইফতেখার আলম সৌরভ অপহরণ ও উদ্ধার হওয়ার ঘটনায় বেশ আলোচিত হন। চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ এলাকার বাসিন্দা সৌরভ গত ৯ জুন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে থেকে অপহৃত হন। পরে সোহেল তাজ সংবাদ সম্মেলনের পাশাপাশি ফেসবুক পেজে পোস্ট দিয়ে ভাগ্নেকে উদ্ধারের দাবি জানান। ভাগ্নেকে ফেরত না পেলে অপহরণকারীদের পরিচয় জনসমক্ষে প্রকাশ করার হুঁশিয়ারিও দেন। এ অবস্থায় অপহরণের ১১ দিন পর ২০ জুন ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলার মধুপুরের বটতলা বাজার থেকে পুলিশ সৌরভকে উদ্ধার করে।

সোহেল তাজ ২০০১ ও ২০০৮ সালের নির্বাচনে গাজীপুর-৪ (কাপাসিয়া) আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হন। ২০০৯ সালের ৬ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকারের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী করা হলেও মাত্র পাঁচ মাসের মাথায় ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে পদত্যাগ করেন তিনি। ২০১২ সালের ২৩ এপ্রিল সংসদ থেকে পদত্যাগ করেন সোহেল তাজ। তার আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে তারই বোন সিমিন হোসেন রিমি এমপি নির্বাচিত হন।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম/জাহিদ।