কে হচ্ছেন ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ বোর্ডের হেড কোচ

নিউজ ডেস্ক:   বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল থেকে ভারত ছিটকে পড়ায় সমালোচনা এখন ঘরে-বাইরে। প্রশ্ন উঠেছে টিম ম্যানেজমেন্ট নিয়েও। দলকে সাজাতে রবি শাস্ত্রীর নেতৃত্ব আর দেখতে চাচ্ছেন না অনেকে। দুই বছর আগে এই রবি শাস্ত্রীকেই টিম ইন্ডিয়ার কোচ হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন শচিন, সৌরভ এবং লক্ষ্মণের উপদেষ্টা কমিটি। কিন্তু বর্তমানে তারা আর কেউই ওই পদে নেই।

ভারতীয় ক্রিকেট দলের হেড কোচ এবং সাপোর্ট স্টাফ নিয়োগের জন্য মঙ্গলবার নিজেদের ওয়েবসাইটে একটি বিজ্ঞাপণ দিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ বোর্ড (বিসিসিআই)।সেখানে হেড কোচ হওয়ার জন্য কয়েকটি শর্ত বেঁধে দেওয়া হয়েছে।

আর এই শর্তের জন্যই কোহলিদের হেড কোচ হওয়ার জন্য আবেদন করতে পারবেন না ভারতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী।সামর্থ থাকলেও দলকে দেওয়ার মতো সুযোগ নেই তার কাছে।কারণ ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড কোহলিদের যার হাতে তুলে দিতে চাচ্ছেন শর্তের প্রথম সুযোগটি নেই সৌরভের।

ভারতীয় বোর্ডের বিজ্ঞাপণে হেড কোচ হওয়ার শর্তাবলী:

(১) কোহলিদের দায়িত্ব নিতে হলে দু’বছর টেস্ট খেলিয়ে দেশের হয়ে কোচিং করানোর অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। অথবা অ্যাসোসিয়েট দেশ, আইপিএল বা সমতুল্য কোনো আন্তর্জাতিক লিগের কিংবা প্রথম শ্রেণির দল কিংবা জাতীয় ‘এ’ দলের হয়ে অন্তত তিন বছর হেড কোচ হিসেবে কাজ করার অভিজ্ঞতা থাকা প্রয়োজন।

(২) ৩০টি টেস্ট কিংবা ৫০টি একদিনের ম্যাচ খেলে থাকতে হবে।

(৩) অবশ্যই বয়স হতে হবে ৬০-এর নিচে।

দুই এবং তিন নম্বর শর্ত দুটি সৌরভ গাঙ্গুলী পূরণ থাকলেও প্রথম শর্তটি পূরণ করতে পারছেন না। কারণ কোচিংয়ের অভিজ্ঞতা তেমনভাবে নেই মহারাজের। ২০১৯ সালে আইপিএলে দিল্লি ফ্র্যাঞ্চাইজির মেন্টর হিসেবে ছিলেন সৌরভ। আর তাই কোহলিদের কোচ হওয়ার জন্য আবেদন করতে পারবেন না সাবেক এই অধিনায়ক।

একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও সৌরভ খ্যাতিসম্পন্ন ক্রিকেটার। একদিনের ক্রিকেটে তার মোট রান সংখ্যা ১১ হাজারেরও বেশি।একদিনের ক্রিকেটে তার সাফল্য সত্ত্বেও ক্যারিয়ারের শেষ দিকে একদিনের ক্রিকেটে তার স্থলে দলে তরুণ ক্রিকেটারদের নেওয়ার প্রবণতা দেখা যায়।

২০০৮ সালের ৭ অক্টোবর সৌরভ ঘোষণা করেন যে সেই মাসে শুরু হতে চলা টেস্ট সিরিজটিই হবে তার জীবনের সর্বশেষ টেস্ট সিরিজ।২০০৮ সালের ২১ অক্টোবর সৌরভ তার সর্বশেষ প্রথম-সারির ক্রিকেট ম্যাচটি খেলেন।