বিশ্বকাপ ক্রিকেট ফাইনালে স্বাগতিক ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড

নিউজ ডেস্ক : রোববার দ্বাদশ বিশ্বকাপের ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড। দুই দলের কেউই কখনো বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ের স্বাদ পায়নি। সর্বশেষ ১৯৯৬ সালে নতুন দল হিসেবে বিশ্বকাপের মঞ্চে শিরোপা জিতেছিল শ্রীলঙ্কা। এরপর কেটে গেছে দীর্ঘ প্রায় দুই যুগ, নতুন কোনো দল শিরোপা জিততে পারেনি। দীর্ঘদিন পর আবার নতুন কোনো দল বিশ্বকাপ ট্রফি উঁচিয়ে ধরবে।

১৯৭৫ সালে প্রথম বিশ্বকাপের আসর বসেছিল ইংল্যান্ডে। সেই আসরের ফাইনালে মুখোমুখি হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও অস্ট্রেলিয়া। ম্যাচে ১৭ রানে জিতে প্রথম বিশ্বকাপ জয়ের উল্লাস করে ক্যারিবীয়রা। বিশ্বকাপের দ্বিতীয় আসরও হয়েছিল ইংল্যান্ডের মাটিতে। সেবার ফাইনালে ওঠে ইংল্যান্ড। কিন্তু দুর্ধর্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে অসহায় ছিল ইংলিশরা। ৯২ রানে ম্যাচ জিতে টানা দ্বিতীয়বার বিশ্বকাপ জেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

১৯৮৩ সালে আবার ফাইনালে উঠে হ্যাটট্রিক শিরোপা জয়ের স্বপ্নে বিভোর ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কিন্তু সেটি হতে দেয়নি ভারত। মাত্র ১৮৪ রানের লক্ষ্য দিয়েও বোলারদের নৈপুণ্যে ৪৩ রানে জিতে প্রথমবার বিশ্বকাপ জেতে তারা। তাই ক্যারিবীয়দের হ্যাটট্রিক শিরোপা জয়ের আশা ভেঙে যায়।

এর পর ১৯৮৭ ও ১৯৯২ সালে দুই আসরেই ফাইনালে উঠেছিল ইংল্যান্ড। কিন্তু দুবারই শিরোপা বঞ্চিত হয়েছিল ইংলিশরা। যথাক্রমে অস্ট্রেলিয়া ও পাকিস্তানের কাছে হেরে শিরোপা হাতছাড়া করে ইংল্যান্ড।

১৯৯৬ সালে নতুন দল হিসেবে শিরোপা জিতে চমকে দেয় শ্রীলঙ্কা। ফেবারিটের তকমা না থাকার পরও লাহোরে ট্রফি উঁচিয়ে ধরেছিল অর্জুনা রানাতুঙ্গার দল।

এর পর ২০১৫ পর্যন্ত অসিরা চারবার ও ভারত একবার শিরোপা জেতে। তাই ১৯৯৬ সালে শ্রীলঙ্কার পর বিশ্বকাপে নতুন কোনো দল শিরোপা জিততে পারেনি।

তাই বিশ্বকাপের মঞ্চে নতুন দল শিরোপা বঞ্চিত রয়েছে ২৩ বছর ধরে। অবশ্য এই বন্ধ্যাত্ব ঘোচানোর সুযোগ আগেও পেয়েছিল নিউজিল্যান্ড। ২০১৫ সালে ফাইনালে উঠেছিল কিউইরা। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে শিরোপা হাতছাড়া করে তারা।

তাই এবার বিশ্বকাপ হাতে নতুন কোনো দলকে যে দেখা যাবে, তা নিশ্চিত। কারণ ফাইনালে ওঠা ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ডের কেউই এখন অবধি বিশ্বকাপের শিরোপা জিততে পারেনি। তাই যে দলই ফাইনাল জিতুক নতুন দল হিসেবেই বিশ্বকাপ জিতবে। ২৩ বছর পর নতুন কেউ চ্যাম্পিয়ন হবে। তাই বিশ্বকাপের ইতিহাসে দেখা যাবে ষষ্ঠ চ্যাম্পিয়ন দলকে।

ইংল্যান্ড দল : এউইন মরগান (অধিনায়ক), মঈন আলি, জফরা আর্চার, জনি বেয়ারস্টো, জশ বাটলার, টম কারান, লিয়াম প্লানকেট, লিয়াম ডসন, আদিল রশিদ, জো রুট, জেসন রয়, বেন স্টোকস, জেমস ভিঞ্চ, ক্রিস ওকস ও মার্ক উড

নিউজিল্যান্ড দল : কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), টম ব্লানডেল, ট্রেন্ট বোল্ট, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, লোকি ফারগুসন, মার্টিন গাপটিল, ম্যাট হেনরি, টম লাথাম, কলিন মুনরো, জেমস নিশাম, হেনরি নিকোলস, মিচেল স্যান্টনার, ইশ সোধি, টিম সাউদি ও রস টেলর।