ব্রিটেনে সবচেয়ে কম মজুরি পান বাংলাদেশিরা

নিউজ ডেস্ক:    ব্রিটেনে সবচেয়ে কম বেতন পান বাংলাদেশিরা। কোনো শ্বেতাঙ্গ ব্রিটিশ নাগরিকের তুলনায় বাংলাদেশি কর্মীরা ঘণ্টা হিসেবে অন্তত ২০ শতাংশ কম টাকা পান। এ বৈষম্য আবার লন্ডনে বেশি। দেশটিতে কর্মরত বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর মানুষের মধ্যেকার মজুরির বৈষম্যের বিষয়টি উঠে এসেছে সাম্প্রতিক এক গবেষণায়। ব্রিটেনের জাতীয় পরিসংখ্যান অফিস (ওএনএস) এ জরিপ চালিয়েছে। খবর গার্ডিয়ানের।

মজুরি-সংক্রান্ত তথ্য বিশ্নেষণ করে ওএনএসের জরিপে বলা হয়, লন্ডনে বসবাসরত বাসিন্দাদের জাতি-বর্ণের ভিত্তিতে সবচেয়ে বেশি ভাগে বিভক্ত করা হয়। এমন শ্রেণিকরণের ভিত্তিতে শ্বেতাঙ্গ বাসিন্দাদের সঙ্গে সংখ্যালঘু বাসিন্দাদের মজুরির ব্যবধান ২১ দশমিক ৭ শতাংশ। এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, ২০১৮ সালে ব্রিটেনের শ্বেতাঙ্গ ব্রিটিশ নাগরিক ঘণ্টায় গড়ে ১২ দশমিক ০৩ পাউন্ড মজুরি পেয়েছেন। একজন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ পেয়েছেন ৯ দশমিক ৬ পাউন্ড। সে তুলনায় একজন পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশও বাংলাদেশির চেয়ে বেশি মজুরি পান। একজন পাকিস্তানি গড়ে ঘণ্টায় মজুরি পান ১০ পাউন্ড।

কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রেও পাকিস্তানিরা এগিয়ে। ব্রিটেনে বসবাসরত পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত জনগোষ্ঠীর ৫৮ দশমিক ২ শতাংশ কাজের সুযোগ পেয়েছেন। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশিরা পেয়েছেন ৫৪ দশমিক ৯ শতাংশ।

ওএনএস জানায়, শ্বেতাঙ্গ ব্রিটিশদের চেয়ে অনেক ক্ষেত্রে ভারতীয় ও চীনা বংশোদ্ভূতরা বেশি মজুরি পেয়ে থাকেন। এ ক্ষেত্রে চীনারা একজন ব্রিটিশ শ্বেতাঙ্গ কর্মীর চেয়ে মোটামুটি ৩০ শতাংশ বেশি বেতন পান। অন্যদিকে কৃষ্ণাঙ্গ আফ্রিকান, ক্যারিবিয়ান কিংবা একজন কৃষ্ণাঙ্গ ব্রিটিশও মজুরি বৈষম্যের শিকার। এদের সবার মজুরি ঘণ্টায় ৯ পাউন্ডের কম।