বান কি মুন ও রানী ম্যাক্সিমা ঢাকায়

নিউজ ডেস্ক:    মঙ্গলবার ঢাকায় এসেছেন জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি মুন এবং নেদারল্যান্ডসের রানী ম্যাক্সিমা। একই দিনে ঢাকায় পৌঁছেছেন মার্শাল দ্বীপপুঞ্জের প্রেসিডেন্ট হিলডা হেইনিও। বান কি মুন ও হিলডা হেইনি ঢাকায় জলবায়ু পরিবর্তনজনিত আন্তর্জাতিক সম্মেলন গ্লোবাল কমিশন অন অ্যাডাপশনে (জিসিএ) অংশ নেবেন। আর ঢাকায় অন্তর্ভুক্তিমূলক আর্থিক কার্যক্রমের ওপর বিশেষ প্রচারণা চালাবেন রানী ম্যাক্সিমা। বিমানবন্দরে তাদের তিনজনকেই পৃথকভাবে স্বাগত জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

মঙ্গলবার ঢাকায় হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে জিসিএ সম্মেলনের প্রারম্ভিক পর্ব শুরু হয়েছে। মূল পর্ব অনুষ্ঠিত হবে বুধবার। এতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বক্তব্য রাখবেন। বক্তব্য রাখবেন মার্শাল দ্বীপপুঞ্জের প্রেসিডেন্ট হিলডা হেইনি এবং জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি মুনও। সম্মেলনে অংশ নেওয়ার ফাঁকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে পৃথকভাবে একান্ত বৈঠকও করবেন তারা। এ ছাড়া কক্সবাজারে খুরুশকুল বিশেষ আশ্রয় প্রকল্প ঘুরে দেখবেন। রোহিঙ্গা ক্যাম্পও পরিদর্শন করতে পারেন বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে।

নেদারল্যান্ডসের রানী ম্যাক্সিমার ঢাকা সফর সম্পর্কে ইউএনডিপির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, অন্তর্ভুক্তিমূলক আর্থিক কার্যক্রম সম্পর্কিত বিশেষ প্রচারণায় অংশ নিতে এবার ঢাকা সফর করছেন তিনি। মোবাইল ব্যাংকিং এবং স্মার্টফোন অ্যাপভিত্তিক কার্যক্রমে সাধারণ মানুষের অংশগ্রহণের বিষয়টি সরেজমিন দেখবেন এবং সংশ্নিষ্টদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন।

সফরকালে তিনি রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করবেন। এ ছাড়া ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবীরের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করবেন তিনি।

প্রেসিডেন্ট হিলডা হেইনি এবং বান কি মুন বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা ত্যাগ করবেন। রানী ম্যাক্সিমা ফিরে যাবেন আগামী শুক্রবার।