পরকীয়াকারী নারীর শস্তি নাই বলে কি খুন?

নাইম রহমান:  আজ থেকে কোন ভাই কোন মেয়েকে বিয়ে করতে চাইলে অনলাইন পত্রিকায় ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দিন। বাচতে হইলে….. বিয়ে করার ১ মাস আগে প্রত্রিকায় হবু বউয়ের ঠিকানা ও ছবি সহ বিজ্ঞাপন দিতে হবে । আমি অমুক,অমুকের মেয়ে অমুক কলেজ এর ছাত্রী এর সাথে আমার বিবাহের কথা বার্তা চলছে। যদি কোন ছেলের সাথে আমার হবু বউয়ের কোন জাস্ট ফ্রেন্ড বা বয় ফ্রেন্ড সম্পর্ক থাকে বা গোপনে বিয়া করে থাকলে, তাহলে উক্ত ব্যাক্তিকে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে উপযুক্ত প্রমান সহ মেসেঞ্জার ইমো তে যোগাযোগ করার অনুরোধ করা হলো৷ বিয়ের পর কোন অভিযোগ গ্রহনযোগ্য হবে না। পরে আমাকে ও আমার বিবাহিত বউকে কিছু বলা ও খুন করা যাবে না। 

যারা অন্যের বউর সাথে পরকিয়া করেন তাদের শাস্তি রিফাতের মত হওয়া উচিত: খুনের মুল নায়িকাকে বাচিয়ে রেখে নয়ন খুনের মাধ্যমে হিরোবনে গেছে। আমরা হাজারো পুরুষ ভুক্ত ভোগি যেই অপরাধ আমরা করতে পারি নাই কিন্তু মাদক সন্ত্রাসী নয়ন বন্ড সেটা প্রতিশোধের অগুনের রক্ত, রাম দা দিয়ে কুপিয়ে সমাজের চোখে অংগুল দিয়ে দেখাল পরকিয়ার ব্যাধির বিচার আছে কি দেশে? তবে অনেক আরব দেশে পরকিয়া বা ব্যাবিচারের বিচারের শাস্তি কাছা কাছি এভাবে হত্যা করা হয়। পরকিয়ার কারনে পরিবার ব্যবস্তা খান খান করে বহু সংসার ভেংগে কোমল মতি সন্তানদের এতিম করে দিচ্ছে । সমাজটাকে উলঙ করে দিচ্ছে কুলাগাররা। পরকিয়া কারী দুই জনই সমান অপরাধী।, রিফাত মিন্নী, কিন্তু খুন করে নয়ন ভিডিও ভাইরাল কারনে ইতিহাসের সেরা খুনি হল।

যেহেতেু নয়ন সাতমাস আগে মিন্নিকে কাবিন করে বিয়া করে তা প্রমানিত।মিন্নি+রিফাত পরকিয় করে বিয়া করে সমাজ আইন+মিডিয়া সেইটাকে বৈধতা দিল?রিফাত যদি পারিবারিক ভাবে বিয়া করে তাহাহলেও বিয়াটি অবৈধ তথ্য গোপন করে মিন্নির বাবা মা কি ভাবে বিয়া দিতে পারে তার জন্য বিচারের কাঠগড়ায় দাড় করানো উচিত। যখন মিন্নিকে বিয়া দেয় রিফাতের কাছে তখন নয়ন বন্ড জেলে ছিল, ছারা পেয়েই সে প্রতিবাদ ডিস্টাব করে আসছিল তখন দুই ফ্যামিলি কেন পুলিশকে যানাল না বা সমাধানের চস্টা করা হলো না কারন দুই ফ্যামিলই অপরাধটি ধামা চাপা দিয়ে দিতে চাইছিল। নয়ন অইনের কাছে বা সমাজের কাছে বিচার চাইলে কি পেতো । সমাজ বলতো মেয়ের ইচ্ছা+ অভিবাবকরা কি বিচার করলো? আইন আদালত বলতো ৪৯৭ ধারায় পরকিয়া কারী মেয়ে নারী নির্ধোষ: শুধু পুরুষ দন্ডিত তাও আবার মেয়ে অভিযেগ না করলে পুরুষটি খালাষ” কি বিচার পেতো ভুক্ত ভুগি পুরুষটি?

বলুন সমাজে এর একিটি বিচার হইছে ? লক্ষ্য লক্ষ্য পুরুষ এই রোগে নিরবে কাদছে। অথচ: পরকিয়া প্রেম করে আপনার সাজানো সংষার সন্তান এতিম হলে ঐ লপ্মট নারির ও ঘুঘু ওলা কুকুর নামের পুরুষের বাংলার জমিন কোন বিচার নাই বরং সমাজের নির্বোধ মানুষ বলবে সার্মথ থাকলে বউ যায় কি ভাবে বরং আপনাকেই প্রশ্ন করে লজ্জিত করা হবে, তবে বরগুনার রিফাত হত্যা থেকে আমাদের শিক্ষা নেওয়া উচিত পরকিয়ার ফলাফল খুব ভয়াবহ । প্লাবন বন্যার মাধ্যমে অপরাধ নাটকের সমাপ্তি হয়।

লেখক- মতামত- নাইম রহমান- পরীবার রক্ষা ও পুরুষ অধিকার আন্দলনের সংগঠক, গণমাধ্যক কর্মী,