জি-২০ সম্মেলনে যোগ দিতে জাপানে মোদি

নিউজ ডেস্ক :    জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণ করতে বৃহস্পতিবার জাপান পৌঁছালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সামিট চলাকালীন একাধিক দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের সঙ্গে পৃথকভাবে বৈঠকে বসবেন তিনি। তবে সবচেয়ে বেশি নজর থাকবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী মোদির আলোচনার উপর।

জাপানের ওসাকা শহরে জুনের ২৮ ও ২৯ তারিখ চলবে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলন। এনিয়ে ষষ্ঠবার এই সম্মেলনে যোগ দিতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। এদিন সকালে এয়ার ইন্ডিয়া-র বিমানে ওসাকার উদ্দেশে উড়ান ভরার আগে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “নারী ক্ষমতায়ন, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা থেকে শুরু করে সন্ত্রাসবাদ ইস্যু নিয়ে অন্যান্য দেশের প্রধানদের সঙ্গে আলোচনা হবে। আন্তর্জাতিক মঞ্চে এই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে দেশের দৃষ্টিভঙ্গি তুলে ধরব আমরা।” এদিন সকালে জাপান পৌঁছানোর পর সে দেশের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তাঁকে স্বাগত জানান জাপানের ওসাকার ভারতীয় সম্প্রদায়। মোদি টুইট করে জানিয়েছেন, ‘‘ওসাকায় পৌঁছেছি জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে। উষ্ণ অভ্যর্থনা জানানোর জন্য ভারতীয় সম্প্রদায়ের কাছে কৃতজ্ঞ।”

উল্লেখ্য, শুক্রবার জি-২০ সম্মেলনের পাশাপাশি মোদি-ট্রাম্প বৈঠকের সম্ভাবনা রয়েছে। কেন্দ্রে বিপুল জনমত নিয়ে এনডিএ সরকারের প্রত্যাবর্তনের পরে এটাই দুই রাষ্ট্রপ্রধানের প্রথম বৈঠক। মোদির জয়ের পরে ট্রাম্প ফোনে তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন। ট্রাম্প ছাড়াও মোদির সঙ্গে চিনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং ও জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে-সহ ১০ জন বিশ্বনেতার বৈঠক হওয়ার কথা। তবে বিশ্বের, বিশেষ করে রাশিয়ার নজর থাকবে ট্রাম্পের সঙ্গে মোদির বৈঠকের ওপর। সম্মেলনের পাশাপাশি মোদি রাশিয়া-ভারত-চিন এবং জাপান-আমেরিকা-ভারত ত্রিপাক্ষিক বৈঠকেও যোগ দেবেন।

পাশাপাশি BRICS নেতাদের সঙ্গেও বৈঠক করবেন তিনি। শনিবার ডোনাল্ড ট্রাম্প ব্যবসায়িক কথাবার্তা চালাবেন চিনের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে। ট্রাম্প একের পর এক দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে আলোচনা করতে পছন্দ করেন। কেবল চিনই নয়, তিনি জাপানে মোট ন’টি দ্বিপাক্ষিক আলোচনায় অংশ নেবেন। শুক্রবার রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন।এই সম্মেল‌নে অংশ নেবে আর্জেন্টিনা, অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল, কানাডা, চিন, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, জার্মানি, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, ইতালি, জাপান, মেক্সিকো, রাশিয়া, সৌদি আরব, দক্ষিণ আফ্রিকা, দক্ষিণ কোরিয়া, তুরস্ক, আমেরিকা, ব্রিটেন।