স্পিনে বাংলাদেশকে চেপে ধরতে চায় আফগানরা

নিউজ ডেস্ক:    বিশ্বকাপে অন্য দলগুলোর তুলনায় এখনো নবীন আফগান ক্রিকেট দল। চলতি বিশ্বকাপ নিয়ে মাত্র দুটি বিশ্বকাপ খেলেছে আফগানিস্তান। নতুন হলেও খেলা দিয়ে জানান দিচ্ছে তাদের শক্তিমত্তার কথা।

ভারতের বিপক্ষে হারলেও যে খেলা দেখিয়েছে, তাতেই কিছুটা আশার সঞ্চার হয়েছে আফগানদের মাঝে। কোহলি-রোহিতরা যেভাবে নাকানি-চুবানি খেয়েছে আফগান স্পিনের সামনে, সেটাই এখন সতর্ক বার্তা হয়ে দাঁড়িয়েছে ব্যাটসম্যানদের জন্য।

বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে সেই আভাস দিলেন আফগান অধিনায়ক গুলবদন নাইব।

তিনি বলেন, ‘আমরা বোলিং করে বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটিং লাইনআপকে ভয় ধরিয়ে দিয়েছি, সেটা আমাদের আত্মবিশ্বাস যোগাচ্ছে। যদি উইকেট স্পিনারদের অনুকূলে থাকে, শুধু বাংলাদেশ কেন, যেকোনো দলেরই আমাদের বিপক্ষে খেলা কঠিন হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ দারুণ খেলছে। আমরা জানি তিনশর ওপর রান তাড়া করে ম্যাচ জিতেছে বাংলাদেশ। তাদের ব্যাটিং অনেক শক্তিশালী, কিন্তু আমরা আমাদের স্পিন অ্যাটাক নিয়ে তৈরি থাকব।’

বাংলাদেশের প্রধান কোচ স্টিভ রোডসও জানিয়েছেন, আফগানিস্তান মোটেই হেলাফেলা করার মতো প্রতিপক্ষ না। কারণ পরিসংখ্যান বলে, এ পর্যন্ত সাতটি ওডিআই ম্যাচে বাংলাদেশ-আফগানিস্তান মুখোমুখি হয়েছে। এর মধ্যে বাংলাদেশ জিতেছে চারটিতে আর তিনটিতে আফগানিস্তান।

রেকর্ড বুক অনুযায়ী, ওডিআই ম্যাচে বাংলাদেশের চেয়ে আফগানিস্তানের সাফল্যের পাল্লাই ভারী। বাংলাদেশ এ পর্যন্ত ৩৬৭টি ওডিআই খেলেছে, যার মধ্যে জয়ের সংখ্যা ১২৪। অন্যদিকে ১২০টি ওডিআই খেলে ৫৯টিতে জিতেছে আফগানরা। অর্থাৎ মোট ম্যাচের প্রায় অর্ধেকই জিতেছে তারা।

তাই বলা চলে, বাংলাদেশের বিপক্ষে আফগানিস্তানের সবচেয়ে বড় শক্তি তাদের স্পিন আক্রমণ। রশিদ খান, মুজিব-উর রেহমান এই স্পিনারদের বিপক্ষে তামিম, সাকিবদের ব্যাট কতখানি জ্বলে ওঠে সেটাই এখন দেখার বিষয়।

আজ বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে তিনটায় ইংল্যান্ডের সাউদাম্পটনের রোজ বোল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে। চলতি বিশ্বকাপে এ পর্যন্ত ছয় ম্যাচ খেলে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫ পয়েন্ট। আর আফগানিস্তানের নামের পাশে এখনো কোনো পয়েন্ট যোগ হয়নি।