কার্যালয় অবরোধ করেছেন ছাত্রদলের বহিষ্কৃত নেতাকর্মীরা

নিউজ ডেস্ক:   ১২ নেতার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার ও কাউন্সিলের তফসিল বাতিলের দাবিতে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করছে ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধরা। তারা বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় অবরুদ্ধ করে রেখেছেন। এ সময়ে কার্যালয় থেকে কাউকে বের হতে বা কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না।

সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় কাকরাইলের স্কাউট ভবনের দিক থেকে বহিষ্কৃত ছাত্রদল নেতাদের নেতৃত্বে একটি মিছিল নয়া পল্টনের কার্যালয়ের সামনে আসে। এরপরে ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা তাদের অবস্থান কর্মসূচি শুরু করে।

এসময় নেতারা আগামী ১৫ জুলাই ছাত্রদলের কাউন্সিলের জন্য ভোট গ্রহণের যে তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে তা বাতিলের দাবি জানান। একই সঙ্গে আন্দোলনকারীদের যাদের বহিষ্কার করা হয়েছে অবিলম্বে তাদের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানায়।

৩ জুন রাতে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটি বিলুপ্ত করে গণমাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি পাঠানো হয়। এতে আগামী ৪৫ দিনের মধ্যে নতুন কেন্দ্রীয় কমিটি গঠনের কথা বলা হয়। নতুন কমিটিতে নেতা হওয়ার যোগ্যতা হিসেবে ২০০০ সাল থেকে পরবর্তী যেকোনো বছরে এসএসসি/সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে বলে জানানো হয়।

এ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ১১ জুন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের ফটকে তালা ঝুলিয়ে দিয়ে বিক্ষোভ করে ছাত্রদলের বিলুপ্ত কমিটির একাংশ। বিলুপ্ত কমিটির নেতারা ছাত্রদলের নতুন কমিটিতে প্রার্থী হতে ২০০০ সাল পর্যন্ত এসএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার যে বয়সসীমা নির্ধারণ করা হয়েছে, তা তুলে দেওয়ার দাবি করেন। কিন্তু বিএনপির নীতিনির্ধারকেরা বয়স্ক ছাত্র নেতাদের যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলে পদায়ন করে নিয়মিত ছাত্রদের দিয়েই কমিটি করতে চান। এরপর থেকে ছাত্রদলের একাংশ আন্দোলন করে আসছে। ওইদিন দুপুরে বিদ্রোহীরা দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমদের ওপর চড়াও হয়।