যুক্তরাষ্ট্রের সাইবার হামলা ইরানের অস্ত্র ব্যবস্থার ওপর

নিউজ ডেস্ক:  ইরানের অস্ত্র ব্যবস্থার ওপর সাইবার হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের ওপর সামরিক অভিযানের সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের পর এই সাইবার হামলা চালানো হলো। খবর বিবিসির।

ইরানি রকেট ও ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণকারী কম্পিউটারের ওপর যুক্তরাষ্ট্র সাইবার হামলা চালিয়ে তা অকার্যকর করে দিয়েছে।

পরমাণু চুক্তি নিয়ে মতানৈক্যের পর ইরানের ওপর ক্রমবর্ধমান চাপ বৃদ্ধির অংশ হিসেবে উগসাগরীয় এলাকায় বিমানবাহী রণতরী ও ক্ষেপণাস্ত্রসহ যুদ্ধ সরঞ্জাম মোতায়েন করে যুক্তরাষ্ট্র। আরব উপসাগরে দুটি ট্যাংকার বিস্ফোরণের ঘটনায় ইরানকে দায়ী করেন ট্রাম্প।

এরইমধ্যে গত বৃহস্পতিবার সকালে ইরানের আকাশসীমায় একটি মার্কিন ড্রোন প্রবেশ করলে সেটিকে ভূপাতিত করে দেশটি।

তবে যুক্তরাষ্ট্রের দাবি, আন্তর্জাতিক আকাশসীমার উপর দিয়ে যাওয়ার সময় ড্রোনটিকে ভূপাতিত করে ইরান। এর জবাব দিতেই এ ধরনের হামলা চালালেন ট্রাম্প।

কয়েক সপ্তাহ ধরেই যুক্তরাষ্ট্র ইরানের অস্ত্র ব্যবস্থায় সাইবার হামলা চালানোর পরিকল্পনা করেছিল বলে জানিয়েছে বিবিসি।

ইরানের সেনাবাহিনী ইসলামিক রেভ্যুল্যুশনারি গার্ড কর্পোরেশন (আইআরজিসি) যেসব অস্ত্র ব্যবহার করে, সেগুলোকে লক্ষ্যবস্তু বানিয়ে এই হামলা চালানো হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে যথাযথ কর্তৃপক্ষের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

২০১৫ সালে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের দেশগুলোর সঙ্গে পরমাণু নিয়ন্ত্রণবিষয়ক একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে ইরান। বিনিময়ে দেশটির ওপর থেকে অর্থনৈতিক অবরোধ তুলে নেওয়া হয়।

কিন্তু গত বছর ইউরোপীয় মিত্রদের বাধা সত্ত্বেও ওই চুক্তি থেকে বেরিয়ে যান মার্কিন প্রেসিডেন্ট। পরে ইরানের ওপর তেল রফতানিসহ বিভিন্ন বিষয়ে একের পর এক অবরোধ আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র। সেখান থেকেই দুই দেশের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি ঘটে।