ঈদের ছুটি শেষে কেউ ফিরছেন ঢাকায়, কেউ যাচ্ছেন

নিউজ ডেস্ক:   ঈদের ছুটি শেষে কাজে যোগ দিতে একদিকে যেমন ঢাকায় ফেরার ভিড় বাড়ছে, অন্যদিকে পরিবার নিয়ে বিনোদনের জন্য ঢাকার বাইরেও যাচ্ছেন কেউ কেউ। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার কিংবা সিলেটের জাফলং অথবা বিছানাকান্দি বা শ্রীমঙ্গলের দিকে ছুঁটছেন অনেকে।বিশেষ করে চাকুরিজীবীরা ঢাকায় চলে আসছেন।আবার অনেক চাকুরিজীবী যাচ্ছেন ঢাকার বাইরে। ছাত্র, ব্যবসায়ী অথবা অন্য পেশার লোকজন বেশিরভাগ পরিবার নিয়ে বেড়াতে যাচ্ছেন ঢাকার বাইরে।

রাজধানীর কমলাপুর গাবতলী, সায়েদাবাদ ঘুরে যাত্রীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ঢাকায় যারা ফিরছেন তারা বেশিরভাগই চাকুরিজীবী।শনিবার তাদের শেষ হচ্ছে ঈদের ছুটি। রোববার থেকে শুরু হচেছ কর্মদিবস।তাই পরিবার নিয়ে বাসে বা ট্রেনে ঢাকায় ফিরছেন তারা।

শনিবার দুপুর দুইটায় কমলাপুরে ট্রেনের জন্য পরিবার নিয়ে অপেক্ষা করছেন খলিলুর রহমান।তারা যাবেন সিলেটে।জয়ন্তিকা ট্রেনের টিকিট করেছেন তারা। ট্রেন ছাড়ার কথা রয়েছে দুপুর আড়াইটায়।সাথে স্ত্রী ও দুই ছেলে।বড় ছেলে অমি এবার এসএসসি পাস করেছে।ছোট ছেলে আরিয়ান ক্লাস ওয়ানে পড়ে। অমি’র পরিক্ষার আগেই বায়না ছিল এসএসসি পাস করার পর তাকে নিয়ে সিলেটে বেড়াতে যেতে হবে।এই ঈদে ছেলের আবদার মেটাতেই খলিলুর রহমানকে পরিবার নিয়ে যেতে হচ্ছে সিলেটে। খলিলুর রহমান একটি ডেভেলপার কোম্পানী পরিচালনা করেন।তাই ঈদে আত্মীয় স্বজনদের সময় দিয়ে এখন তিন দিনের জন্য যাচ্ছেন সিটেলে।অমি জানালো, তারা সিলেটের জাফলং আর বিছানাকান্দি বেড়াবে।সময় সুযোগ হয়ে শ্রীমঙ্গলের চা বাগানেও একবার যাওয়ার ইচ্ছা আছে তাদের।

দুপুর একটায় চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে কমলাপুর ছেড়ে গেছে চট্টলা এক্সপ্রেস।এই ট্রেনের যাত্রী রানা, সোহাগ, আয়নাল, রনি। তারা বন্ধুরা মিলে ৮ জন। সবাই যাচ্ছেন চট্টগ্রাম। সেখান থেকে কক্সবাজার। চার দিনের লম্বা প্ল্যান নিয়ে সব বন্ধু মিলে যাচ্ছেন ঘুরতে।

একইভাবে গাবতলীতে কথা হয় সুনীলের সাথে। তিনিও পরিবার নিয়ে যাচ্ছেন কুয়াকাটা। একটি ব্যাংকের নিরাপত্তাকর্মীর চাকুরী করেন সুনীল। সনাতন ধর্মাবলম্বী হওয়ার কারণে ঈদের কয়েকদিনে ছুটি পাননি। এখন তিনি পাঁচ দিনের ছুটি পেয়েছেন। তাই তিনদিনের জন্য তিনিও পরিবার নিয়ে যাচ্ছেন কুয়াকাটা। টিকিট কাটেছেন সাকুরা পরিবহনের। একইভাবে অনেক পরিবার যাচ্ছেন ঢাকার বাইরে পরিবার নিয়ে বিনোদনের জন্য।

আর ঈদের ছুটি শেষে রোববার থেকে কাজে যোগ দিতে অনেকেই এখন বাস কিংবা ট্রেনে ফিরছেন রাজধানীতে।