খালেদা জিয়াকে দেশের সর্বোত্তম চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে: ড. হাছান

নিউজ ডেস্ক:    বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে দেশের সর্বোত্তম চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে বলে দাবি করেছেন তথ্যমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। সেজন্য খালেদার স্বাস্থ্য নিয়ে অপরাজনীতি না করতে বিএনপি নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

রোববার (২৬ মে) সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে হাছান মাহমুদ এ আহ্বান জানান।

তথ্যমন্ত্রী বেলন, খালেদা জিয়াকে সর্বোত্তম চিকিৎসা দিতে সরকার সচেষ্ট, তাকে দেশের সর্বোত্তম চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তার জন্য সার্বক্ষণিক একজন নার্স, একজন ফিজিওথেরাপিস্ট, একজন ডাক্তার রয়েছেন। তারা সবসময় খালেদা জিয়ার খোঁজখবর নিচ্ছেন। এছাড়া খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও কাজের লোকও রয়েছেন।

বিএনপি প্রধানের শারীরিক অবস্থা বর্তমানে ভালো আছে জানিয়ে হাছান মাহমুদ বলেন, কিছুদিন আগে জিহ্বায় ঘা এর কারণে স্বাভাবিক খাবার খেতে পারেননি খালেদা জিয়া। এখন তিনি সুস্থ আছেন। এছাড়া তার হাঁটুর ব্যথা ১৫-২০ বছর আগের। এটা নিয়েই তিনি প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব এবং বিএনপির মতো দলের চেয়ারপারসনের দায়িত্ব পালন করেছেন।

‘বিএনপির নেতারা যেভাবে বলছেন খালেদা জিয়ার জীবন সংকটাপন্ন। এটা ঠিক নয়। এটা যদি খালেদা জিয়া জানতে পারেন তাহলে তিনিই উষ্মা বা মৃদু ক্ষোভ প্রকাশ করবেন।’

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ঐক্য ফ্রন্টে ঐক্য নেই। য়ারা নিজেদের ঐক্য ধরে রাখতে পারে না, তারা কিভাবে একটি বৃহত্তর ঐক্য করবে?

আরেক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, গত ১০ বছরে সংবাদপত্রের সংখ্যা বেড়েছে কয়েকগুণ। বর্তমানে সাড়ে ৩ হাজার পত্রিকা রয়েছে। একইসঙ্গে অনলাইন পত্রিকাও প্রায় ৪ হাজার। এগুলোর নিবন্ধন না থাকায় অনেক সমস্যা হচ্ছে। এজন্য আমরা তাদের দ্রুত নিবন্ধনের আওতায় নিয়ে আসবো। এছাড়া সম্প্রচার আইনটি পাস করার ক্ষেত্রে আমাদের যত্নবান হতে হবে। বর্তমানে আইনটি ভেটিংয়ের জন্য রয়েছে। যত দ্রুত সম্ভব এটি জাতীয় সংসদে পাঠানো হবে।