কি কারণে কমে যাচ্ছে ঝিনাইদহে পাটের আবাদ

মোঃ জাহিদুর রহমান তারিক,স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহ: যশোর অঞ্চলের ৬ জেলায় গতবছরের চেয়ে চলতি বছর একহাজার ৩শ’ ১৬ হেক্টর জমিতে পাটের আবাদ বেশি হয়েছে। তবে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে আবাদ হয়েছে কম। চলতি বছর (২০১৯-২০২০ অর্থবছর) ৬ জেলায় পাটের আবাদ হয়েছে একলাখ ৩৭ হাজার ৫ হেক্টর জমিতে। লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল একলাখ ৬১ হাজার ৪শ’ ২৫ হেক্টর জমি। গতবছর (২০১৮-২০১৯) পাটের আবাদ হয়েছিল একলাখ ২৩ হাজার ৮৯ হেক্টর জমিতে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, চলতি বছরে যশোর জেলায় পাটের আবাদ হয়েছে ১৭ হাজার ৫শ’ ৩০ হেক্টর জমিতে। লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ২৬ হাজার ৪শ’ ৫০ হেক্টর জমি। ৮ হাজার ৯শ’ ২০ হেক্টর জমিতে আবাদ কম হয়েছে। ঝিনাইদহ জেলায়ও একই অবস্থা। এ জেলায়ও লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২ হাজার ৪শ’ ৭০ হেক্টর জমিতে কম আবাদ করা হয়েছে। ঝিনাইদহ জেলায় পাটচাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ২২ হাজার ৮শ’ ৯৫ হেক্টর জমি। আবাদ হয়েছে ২০ হাজার ৪শ’ ২৫ হেক্টর জমিতে। একই অবস্থা মাগুরা, কুষ্টিয়া, চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুর জেলাতেও। মাগুরা জেলায় পাটের আবাদ হয়েছে ৩২ হাজার ৪শ’ ৫০ হেক্টর জমিতে। লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ৩৬ হাজার একশ ১০ হেক্টর জমি। এ জেলায়ও ৩ হাজার ৬শ’ ৬০ হেক্টর জমিতে কম আবাদ হয়েছে।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম/জাহিদ।