ইরান সবচেয়ে বেশি স্বচ্ছতার পরিচয় দিয়েছে: পুতিন

নিউজ ডেস্ক:  রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, ২০১৫ সালে পরমাণু সমঝোতা স্বাক্ষর করার পর থেকে এখন পর্যন্ত পরমাণু কর্মসূচির ক্ষেত্রে ইরান সবচেয়ে বেশি স্বচ্ছতার পরিচয় দিয়েছে। তিনি বুধবার মস্কোয় এক বক্তৃতায় একথা বলেন।

পুতিন বলেন, “আমি ব্যক্তিগতভাবে আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা বা আইএইএ’র প্রধানের সঙ্গে ইরানের ব্যাপারে কথা বলেছি। তিনি আমাকে জানিয়েছেন, ইরান তার পরমাণু প্রতিশ্রুতি পুরোপুরি পালন করেছে।” এরপর রুশ প্রেসিডেন্ট আরো বলেন, “তবে পরমাণু সমঝোতা টিকিয়ে রাখা শুধুমাত্র রাশিয়ার ওপর নির্ভর করছে না।”

ইরান পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে যেতে পারে বলে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রকাশিত জল্পনা প্রসঙ্গে ভ্লাদিমির পুতিন বলেন, “আমি ইরানি কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনায় বহুবার বলেছি, এ সমঝোতা টিকিয়ে রাখা বেশি যুক্তিপূর্ণ পন্থা। কারণ, ইরান এ সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গেলে সবাই একথা ভুলে যাবে যে, আমেরিকা আগে এটি থেকে বেরিয়ে গিয়েছিল। তখন সব দোষ ইরানের ঘাড়ে চাপানো হবে।”রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট বলেন, “দুঃখজনকভাবে ইরানের পরমাণু কর্মসূচি সম্পর্কে সবগুলো চুক্তি লঙ্ঘন করা হয়েছে। কিন্তু রাশিয়া সব সময় এ চুক্তির প্রতি সমর্থন জানিয়েছে। কাজেই পরমাণু সমঝোতা মেনে চলাই ইরানের জন্য লাভজনক হবে।”

ইরানের পরমাণু সমঝোতা থেকে আমেরিকার একতরফাভাবে বেরিয়ে যাওয়ার প্রথম বার্ষিকীতে গত ৮ মে তেহরান এ সমঝোতার কিছু ধারার বাস্তবায়ন স্থগিত রাখার ঘোষণা দিয়েছে। একইসঙ্গে ইরান বলেছে, এ সমঝোতার অবশিষ্ট পক্ষগুলো বিশেষ করে ব্রিটেন, ফ্রান্স ও জার্মানি তাদের প্রতিশ্রুতি পালন করলে তেহরান আবার ওই ধারাগুলোর বাস্তবায়ন শুরু করবে।