‘হামলাকারীদের একজন যুক্তরাজ্যে পড়াশুনা করেছেন’

নিউজ ডেস্ক: শ্রীলঙ্কায় ইস্টার সানডেতে আত্মঘাতী বোমা হামলাকারীদের বিষয়ে তথ্য সামনে আসছে। হামলাকারীদের মধ্যে একজন যুক্তরাজ্যে পড়ালেখা করেছেন বলে দাবি দেশটির কর্মকর্তাদের। আজ বুধবার বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

দেশটির উপপ্রতিরক্ষামন্ত্রী রুয়ান ওয়াইজেবর্ধনে বলেন, অস্ট্রেলিয়ায় একটি কোর্স করার আগে এক হামলাকারী যুক্তরাজ্যে পড়াশোনা করেছেন।

আজ এক সংবাদ সম্মেলনে এসে উপপ্রতিরক্ষামন্ত্রী রুয়ান এই দাবি করেন। সন্দেহভাজন হামলাকারীদের বিষয়ে তিনি আরও তথ্য দেন।

রয়ান বলেন, একজন হামলাকারী যুক্তরাজ্যে পড়ালেখা করেছেন। পরে তিনি অস্ট্রেলিয়ায় পোস্টগ্র্যাজুয়েট করেছেন। তারপর তিনি শ্রীলঙ্কায় ফিরে আসেন।

উপপ্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, অধিকাংশ হামলাকারী সুশিক্ষিত। তাঁরা মধ্যবিত্ত ও উচ্চমধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান। তাঁরা আর্থিকভাবে যথেষ্ট স্বাধীন। তাঁদের পরিবারের আর্থিক অবস্থাও বেশ ভালো।

শ্রীলঙ্কার পুলিশের ভাষ্য, তারা নয়জন হামলাকারীর মধ্যে আটজনকে শনাক্ত করেছে। তাঁদের মধ্যে একজন নারী। তাঁরা সবাই শ্রীলঙ্কান।

শ্রীলঙ্কায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আজ দেশটিকে সতর্ক করে বলেছেন, সে দেশে আরও হামলার ষড়যন্ত্র চলছে। সন্ত্রাসীরা জানান না দিয়েই ফের হামলা চালাতে পারে।

শ্রীলঙ্কায় গত রোববার গির্জা, হোটেলসহ আটটি স্থানে বোমা হামলায় মৃত ব্যক্তির সংখ্যা বেড়ে ৩৫৯–এ পৌঁছেছে। আহত পাঁচ শতাধিক।

হামলার দায় স্বীকার করেছে আন্তর্জাতিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)। তবে তারা এই দাবির পক্ষে প্রত্যক্ষ কোনো প্রমাণ দিতে পারেনি।

শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে বলেছেন, হামলার সঙ্গে আইএসের সংশ্লিষ্টতা থাকতে পারে বলে তিনি বিশ্বাস করেন।

হামলার ঘটনায় স্থানীয় হামলাকারীদের সঙ্গে আন্তর্জাতিক কোনো গোষ্ঠীর যোগসূত্র আছে কি না, তা খতিয়ে দেখছে শ্রীলঙ্কার কর্তৃপক্ষ।