ইকরামূল হক টিটু বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় ময়মনসিংহ সিটির মেয়র নির্বাচিত হচ্ছেন


মো. নজরুল ইসলাম, ময়মনসিংহ :
বাংলাদেশের রাজনীতিতে সর্বজন শ্রদ্বেয় মমতাময়ী বেগম রওশন এরশাদ এমপি তার আসন থেকে নিজ দলের মেয়র প্রার্থীর প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নেয়ায় আবারো একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ । এর প্রেক্ষিতে দলমত নির্বিশেষে সকলের প্রিয়ভাজন ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন (মসিক) প্রশাসক, মহানগর আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি, আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী ইকরামুল হক টিটু বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হতে চলেছেন। অপর প্রার্থী জাতীয় পার্টি মনোনীত মেয়র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আহমেদ মঙ্গলবার বিকেলে স্থানীয় একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলন ও কর্মীসভার মাধ্যমে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর পক্ষে তার নিজের প্রার্থীতা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন। এরফলে বর্তমানে ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন (মসিক) নির্বাচনে একক প্রার্থী রয়ে গেছেন ইকরামুল হক টিটু। নির্বাচন কমিশন ঘোষণা করলেই বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় মেয়র নির্বাচিত হবেন ইকরামুল হক টিটু।

 

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট জহিরুল হক খোকা, জেলা আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি আমিনুল হক শামীম (সিআইপি), মহানগর আওয়ামীলীগ সভাপতি এহতেশামূল আলম, জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, জেলা জাপার সহ-সভাপতি সোহরাব উদ্দিন, জেলা জাপার যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক মোশাররফ হোসেন ও আব্বাস উদ্দিন তালুকদার, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আফজালহোসেন হারুন ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি হোসেন আলী প্রমূখ।
মঙ্গলবার বিকেলে ময়মনসিংহ শহরের গঙ্গাদাসগুহ রোডের জুবেদা কমিউনিটি সেন্টারে এক কর্মীসভায় মহানগর জাপা সভাপতি ও জাতীয় পার্টি মনোনীত মেয়র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আহমেদ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ইকরামূল হক টিটু পক্ষে তার নিজের প্রার্থীতা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন। লিখিত বক্তব্যে জাহাঙ্গীর আহমেদ বলেন, বিগত ২০১৪ এবং ২০১৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ময়মনসিংহ-৪ সদর আসনটি জাতীয় পার্টিকে ছেড়ে দেন। সেই সাথে আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীরাও অক্লান্ত পরিশ্রম করে বিজয়ী করেন বেগম রওশন এরশাদকে। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে এবং মহাজোটের নেতাকর্মীদের সহাবস্থান নিশ্চিত করার লক্ষ্যে তার মনোনীত প্রার্থী ইকরামূল হক টিটু পক্ষে জাপার প্রার্থীতা প্রত্যাহারের নির্র্দেশ দিয়েছেন। তার বিনিময়ে সিটি এলাকার বিভিন্ন ওয়ার্ডে জাপা’র কাউন্সিলরদের বিজয়ী করার জন্য আওয়মীলীগ নেতৃবৃন্দের প্রতি আহবান জানান।

গত ২৫ মার্চ ময়মনসিংহ সিটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। ভোটগ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ৫ মে।
গত সাড়ে ৯ বছর পৌরসভার মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালনকালীন ময়মনসিংহ নগরীতে পরিকল্পিত উন্নয়ন, দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে সম্পর্কের সেতুবন্ধন রচনা করা, তাদের মূল্যায়ন করা, সব শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে নিবিড় যোগাযোগসহ নানা কারণেই ক্ষমতাসীনদের মনোনয়ন দৌড়ে এগিয়ে ছিলেন ইকরামুল হক টিটু। তিনি ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগেরও সহ-সভাপতি।
ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র হিসেবে সাড়ে ৯ বছর সফলতার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের পর তার কর্মকান্ডে সন্তুষ্ট ও পূর্ণ আস্থা রেখেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে সিটি করপোরেশনের ‘প্রথম প্রশাসক’ হিসেবে নিয়োগ দিয়ে চমক সৃষ্টি করেন।

দেশের ১২তম সিটি ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন (মসিক) নির্বাচনে ময়মনসিংহ পৌরসভার সাবেক সফল মেয়র, মহানগর আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি, বর্তমান মসিক প্রশাসক ইকরামূল হক টিটু বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় ময়মনসিংহ সিটির প্রথম মেয়র নির্বাচিত হওয়ার দ্বারপ্রান্তে পৌছায় ময়মনসিংহের বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। সেইসাথে ইকরামূল হক টিট’ুর নেতৃত্বে একটি আধুনিক মহানগরী গড়ে উঠবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। যারা অভিনন্দন বার্তা জানিয়েছেন তারা হলেন- ময়মনসিংহ জেলা নাগরিক আন্দোলনের সভাপতি অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান খান ও সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার নূরুল আমিন কালাম, ত্রিশাল পৌরসভার মেয়র এবিএম আনিছুজ্জামান আনিছ, জেলা বিএমএ সাধারণ সম্পাদক ডাঃ এইচ.এ গোলন্দাজ তারা, গণকল্যাণ পরিষদের নির্বাহী পরিচালক ড. মোঃ সিরাজুল ইসলাম, দৈনিক আলোকিত ময়মনসিংহ সম্পাদক প্রদীপ ভৌমিক, ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি এফ.এম এ সালাম ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম, জেলা ট্রেড ইউনিয়নের সভাপতি মাহবুব বিন সাইফ প্রমূখ।