কৃষি খাতের সার্বিক উন্নয়নে সহায়তা দিচ্ছে সরকার:কৃষিমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক:    কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, ‘বর্তমান সরকার কৃষি খাতের সার্বিক উন্নয়নে সব ধরনের সহায়তা দেওয়ায় দেশ আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে’। বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) গাম্বিয়ার হাইকমিশনার ই এমএস জাইনবা জগনের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল কৃষিমন্ত্রীর সঙ্গে তার মন্ত্রণালয়ের অফিস কক্ষে সাক্ষাৎ করতে এলে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘দেশের কৃষিবিদ, বিজ্ঞানী ও গবেষকরা উচ্চ ফলনশীল পরিবেশ উপযোগী ফসলের জাত উদ্ভাবন করে দেশকে খাদ্য উৎপাদনে সাফল্য এনে দিয়েছে। দেশের কৃষিতে এখন বিনিয়োগ, রপ্তানি বাজার ও প্রক্রিয়াজাতকরণের জন্য সহায়তা প্রয়োজন। দেশে বিনিয়োগের সুষ্ঠু পরিবেশ রয়েছে। শিল্প কলকারখানা স্থাপনের সকল সুযোগ সুবিধা রয়েছে। আমাদের প্রধান ফসল ধান হলেও দেশে গম ও ভুট্টা উৎপাদন হচ্ছে। ভবিষ্যরে ভুট্টা উৎপাদন বৃদ্ধির মাধ্যমে ভুট্টা আমদানি হ্রাস করা হবে’।

এ সময় জাইনবা জগনে বলেন, ‘বরাবরের মতো রোহিঙ্গা ইস্যূতে গাম্বিয়া বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশকে সমর্থন দিয়ে যাবে। গাম্বিয়ার সরকার বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ তৈরির জন্য বিনিয়োগ করলে রাজস্ব মুক্ত সুবিধা দিয়ে থাকে। এ ছাড়া কৃষিসহ অগ্রাধিকার খাতভিত্তিক বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ব্যাপক হারে সুবিধা দেঘয়া হয়’। তিনি বাংলাদেশ-গাম্বিয়ার মধ্যে কৃষিসহ সহযোগিতার অনেক ক্ষেত্র রয়েছে বলে উল্লেখ করেন।

গাম্বিয়ার হাইকমিশনার তার দেশের কৃষিক্ষেত্রে বাংলাদেশকে বিনিয়োগ করার এবং সে দেশের কৃষকদের প্রশিক্ষণ প্রদানের অনুরোধ জানান। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ খাদ্য উৎপাদনে সাফল্য অর্জন করেছে, যা প্রশংসার দাবিদার। এই সাফ্যল জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা জানতে চায় গাম্বিয়ার কৃষকবৃন্দ’।

প্রতিনিধি দলে আরও ছিলেন কনসুল কাজী খুররান আহমেদ, প্রথম সচিব সঙ্কুং ফোফানা, বুবা কিন্থ অর্থ সহদূত, কনস্যুলেট এম আহসান উল্লাহ খান ও কনস্যুলেট রোবেল আহমদ।