মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাতের সার্বিক দায়িত্ব নিলেন প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক:   ফেনীর সোনাগাজীতে পরীক্ষা কেন্দ্রে মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির শরীরে আগুনের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী ওই ছাত্রীর সার্বিক দায়িত্বও নিয়েছেন। তিনি নুসরাতের চিকিৎসায় যাতে কোনো ত্রুটি বা অবহেলা না হয় সে নির্দেশনাও দিয়েছেন সংশ্নিষ্ট চিকিৎসকদের।

রোববার দুপুরে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ‘শেখ হাসিনা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের’ সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন দেখা করতে গেলে প্রধানমন্ত্রী এসব নির্দেশনা দেন।

ডা. সামন্ত লাল সেন সমকালকে বলেন, ফেনীর ওই ছাত্রীর ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক। দগ্ধ নুসরাতকে সর্বোচ্চ চিকিৎসা দিতে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী তার কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়ে বলেছেন, ঘটনায় জড়িত কেউ যাতে ছাড় না পায়। তিনি জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার নির্দেশ দিয়েছেন।

শনিবার সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে আলিম পরীক্ষা দিতে যায় নুসরাত। পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণ আগে বোরকা পরা চারজন তার শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে তার চিকিৎসা চলছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, নুসরাতের জীবন সংকটাপন্ন।

গত ২৭ মার্চ মাদ্রাসাটির অধ্যক্ষ ওই ছাত্রীকে তার কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে শ্নীলতাহানি করেন। ওই ঘটনায় ছাত্রীর পরিবার অধ্যক্ষ এসএম সিরাজ উদ দৌলার বিরুদ্ধে মামলা করে। অধ্যক্ষ বর্তমানে ওই মামলায় কারাগারে রয়েছেন।