ফ্রান্সের বিএনপি পারিবাসের সঙ্গে যৌথ মার্কেটপ্লেস চালু করলেন ইউনূস

নিউজ ডেস্ক:  ‘ক্লাইমেটসীড’ নামে একটি সামাজিক ব্যবসা কোম্পানী চালুর লক্ষ্যে ফ্রান্সের নেতৃস্থানীয় ব্যাংক বিএনপি পারিবাসের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন নোবেল বিজয়ী অধ্যাপক মুহাম্মদ ইউনূস। রবিবার প্যারিসে গ্রামীণ ক্রিয়েটিভ ল্যাব-জার্মানীর চেয়ারম্যান ও সহ-প্রতিষ্ঠাতা প্রফেসর ইউনূস প্রতিষ্ঠানটির পক্ষে বিএনপি পারিবাসের সাথে এই চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। ইউনূস সেন্টার থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘ক্লাইমেটসীড’ বিএনপি পারিবাস সৃষ্ট প্রথম স্বতন্ত্র সামাজিক ব্যবসা। সামাজিক ব্যবসার মাধ্যমে জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় কাজ করবে এটি।

এই চুক্তির মাধ্যমে বিশেষ করে সামাজিক ব্যবসা উদ্যোগকে কেন্দ্র করে পাঁচ বছর মেয়াদী একটি বৈশ্বিক অংশীদারিত্বের ক্ষেত্র তৈরী হলো। এর মাধ্যমে গ্রামীণ ক্রিয়েটিভ ল্যাব ও বিএনপি পারিবাস যৌথভাবে বিএনপি পারিবাস গ্রুপভূক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোতে বিভিন্ন সামাজিক ব্যবসা উদ্যোগ সৃষ্টি ও এগুলোকে সম্প্রসারিত করবে। এর প্রথম উদাহরণ হলো বিএনপি পারিবাস সিকিউরিটিজ সার্ভিসেস কর্তৃক ক্লাইমেটসীড সৃষ্টি।

ক্লাইমেটসীড হচ্ছে একটি মার্কেটপ্লেস প্লাটফরম যা জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জনে কার্বন নিঃস্বরণ রোধ করতে আগ্রহী তার অধীনস্ত কোম্পানীগুলোকে স্বেচ্ছামূলক কার্বন ক্রেডিট প্রদানকারী প্রকল্পগুলোর সাথে একসঙ্গে কাজ করতে ও এগুলোর অর্থায়নে সহায়তা করবে। ক্লাইমেটসীড তার সকল মুনাফা কার্বন হ্রাসকারী বিভিন্ন উদ্যোগে বিনিয়োগ করবে এবং এভাবে সমাজ ও পরিবেশের উন্নয়নে তার অবদান সর্বোচ্চ করার চেষ্টা করবে।

এই অংশীদারিত্ব বিএনপি পারিবাসের কর্মীদের মধ্যে সামাজিক ব্যবসা বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করবে এবং গ্রামীণ ক্রিয়েটিভ ল্যাব এর অধীনে বিনা খরচে আইনী পরামর্শ পাবে। ফরাসী সরকারের সামাজিক ও সংহতি অর্থনীতি এবং সামাজিক উদ্ভাবন বিষয়ক হাই কমিশনার ক্রিস্টোফে আইতিয়ের চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

প্রফেসর ইউনূস বলেন, ‘এই যৌথ সহযোগিতা নিয়ে আমরা অত্যন্ত আশাবাদী। এর একটি শক্তিশালী বার্তা রয়েছে: পৃথিবীর অন্যতম বৃহত্তম একটি ব্যাংকিং গ্রুপ তাদের নিজস্ব সামাজিক ব্যবসা তৈরী করছে এবং সামাজিক ব্যবসার ধারণা তার কর্মীদের মধ্যে বিস্তৃত করছে। আমরা আশা করছি অন্যরাও এর পদাংক অনুসরণ করবে।’

বিএনপি পারিবাসের হেড অব কর্পোরেট এনগেজমেন্ট ও নির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যান্টোনে সায়ার বলেন, ‘টেকসই ও সমতাভিত্তিক অর্থনৈতিক প্রসারে এবং সমাজের বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় বিএনপি পারিবাস বরাবরই প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।প্রফেসর ইউনূসের মতো আমরাও বিশ্বাস করি যে, সামাজিক ব্যবসার মাধ্যমে এই লক্ষ্য অর্জন করা সম্ভব।’

উল্লেখ্য, বিএনপি পারিবাস অতীতেও প্রফেসর ইউনূসের বিভিন্ন উদ্যোগে সহায়তা দিয়েছে যার অন্যতম গ্রামীণ আমেরিকার ক্ষুদ্রঋণ কর্মসূচি। এটির অধীনে অত্যন্ত নিম্ন আয়ের নারীদেরকে ঋণ প্রদান করা হয়। প্রতিষ্ঠানটি ২০১৮ সালে গ্রামীণ আমেরিকার পক্ষে নিউ ইয়র্ক ও ক্যালিফোর্নিয়ার দরিদ্র নারীদেরকে নিজস্ব ব্যবসা গড়ে তুলতে সহায়তার জন্য ১৫ লক্ষ মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করেছে। এ প্রকল্পের লক্ষ্য আগামী ১০ বছরে ১২,০০০ নারী-মালিকানাধীন ব্যবসা ও ২২,০০০ নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা। এই দীর্ঘস্থায়ী সহায়তার ফসল হচ্ছে গত বছরে সর্বমোট ১৬০ কোটি ইউরোর সামাজিক ব্যবসা, সামাজিক ব্যবসা উদ্যোগ ও ক্ষুদ্রঋণ।

একই প্যারিস সফরে প্রফেসর ইউনূস ফ্রান্সের খ্যাতনামা লিল ক্যাথলিক ইউনিভার্সিটিতে একটি ‘ইউনূস সোশ্যাল বিজনেস সেন্টার’ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয়টির সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করেন। নব প্রতিষ্ঠিত এই সেন্টারটি নিয়ে পৃথিবীর ৩০টি দেশে এ পর্যন্ত প্রতিষ্ঠিত ইউনূস সেন্টারের সংখ্যা দাঁড়ালো ৭১টি।