নগর বাড়লেও সেবা সংস্থার সক্ষমতা বাড়েনি: সাঈদ খোকন

নিউজ ডেস্ক:  ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বলেছেন, নগরীর দ্রুত বিকাশমান অর্থনৈতিক কার্যক্রম, জনসংখ্যার আধিক্য এবং ভৌত অবকাঠামোর উন্নয়নের সঙ্গে তাল মিলিয়ে সেবা সংস্থাগুলোর প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা বাড়েনি। তাই নগর ব্যবস্থাপনায় নানা ঘাটতি দেখা যাচ্ছে। এ অবস্থার উত্তরণে সেবা সংস্থাগুলোর মধ্যে সমন্বয় জোরদার করা প্রয়োজন।

রোববার দুপুরে স্টেট ইউনিভার্সিটির উদ্যোগে কলাবাগানে ‘ফায়ার হ্যাজার্ড, সেফ ম্যানেজমেন্ট, চ্যালেঞ্জেস অ্যান্ড ওয়ে ফরওয়ার্ড’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

স্টেট ইউনিভার্সিটির উপাচার্য ড. সাঈদ সালামের সভাপতিত্বে এ আলোচনায় অংশ নেন সাংবাদিক মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর, ডা. এসএমজি কিবরিয়া, ড. আহসান হাবিব, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মকর্তা মেজর শাকিল নেওয়াজ, অধ্যাপক শামসুল ওয়ারেশ, অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস প্রমুখ।

মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, নাগরিক জীবনে অনভ্যস্ত হলেও প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ জীবন-জীবিকার তাগিদে এ নগরীতে আসছেন। তাদের মধ্যে সচেতনতা না থাকাই স্বাভাবিক। তবে শহুরে শিক্ষিত মানুষের মধ্যেও এটির অভাব দেখা যায়। তাই সবার জন্যই সড়ক দুর্ঘটনা বা অগ্নিদুর্ঘটনার মতো পরিস্থিতি মোকাবেলায় সচেতনতা অত্যন্ত প্রয়োজন। পাশাপাশি প্রত্যেকটি প্রতিষ্ঠান ও নাগরিককে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি বলেন, ব্যবসার প্রসার ঘটুক সেটা সবাই চাই। কিন্তু জীবনহানি ঘটে, জীবন হুমকির মধ্যে পড়ে এমন ব্যবসা নগর কর্তৃপক্ষ কোনোভাবেই মেনে নেবে না।

পেশাজীবীদের সঙ্গে ডিএনসিসি মেয়রের মতবিনিময় : এদিকে রোববার নগরভবনে বিভিন্ন পেশাজীবীর সঙ্গে মতবিনিময় করেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। সভায় দুটি সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এক. অগ্নিকাণ্ডের কারণ ও করণীয় সম্পর্কে জনসচেতনতা সৃষ্টি করা। এ লক্ষ্যে অডিও-ভিজুয়াল প্রস্তুত করে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রচার। দুই. একটি কমপ্লায়েন্স টিম গঠন করা। ডিএনসিসি, বুয়েট, বিভিন্ন সোসাইটি ও ফায়ার সার্ভিসের সমন্বয়ে টিমটি গঠন করা হবে। এ টিম মূলত বিভিন্ন ভবন পরিদর্শন করে অগ্নিঝুঁকি নিরসনে যথেষ্ট ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে কি-না তা পর্যবেক্ষণ করবে।

মতবিনিময় সভায় ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল হাই, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সৈয়দ ফরহাত আনোয়ার, সেন্টার ফর আরবান স্টাডিজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপক নজরুল ইসলাম, বুয়েটের অধ্যাপক মেহেদী আহমেদ আনসারী, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সাবেক মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার (অব.) আলী আহমেদ, স্থপতি ইকবাল হাবিব, ব্যবসায়ী নেতা রুবানা হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।