তিন নারী অধিকারকর্মীকে মুক্তি দিলো সৌদি আরব

নিউজ ডেস্ক:   প্রায় এক বছর ধরে সৌদি আরবের কারাগারে থাকা তিন নারী অধিকারকর্মীকে অস্থায়ীভাবে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। মামলার শুনানি চলাকালে জিজ্ঞাসাবাদের সময় তাদের ওপর নির্যাতন ও যৌন হায়রানি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যম।

তবে ওই তিন নারী অধিকারকর্মীকে নির্যাতন বা যৌন হয়রানি করা হয়নি বলে দাবি করেছে সৌদি সরকার।

আল-জাজিজার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গতকাল বৃহস্পতিবার ওই তিন অধিকারকর্মীকে নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করে এসপিএ নিউজ অ্যাজেন্সি। তবে সেখানে তাদের নাম উল্লেখ করা হয়নি। স্থানীয় অন্য গণমাধ্যমে তাদের নাম জানানো হয়। ওই তিন নারী হলেন, ব্লাগার ইমাম আল-নাফজান, কিং সাউদ ইউনির্ভাসিটির অবসরপ্রাপ্ত লেকচারার আজিজা আল-ইউসুফ ও অ্যাকাডেমিক রোকেয়া আল-মোহারেব।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম এবং মানবাধিকার গ্রুপের সঙ্গে ওই তিন নারীর যোগাযোগ আছে-অধিকার সংগঠনগুলোর এমন অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করা হয়। পরে গত বুধবার দ্বিতীয় দফা শুনানির পর তারা মুক্তি পান।

রিয়াদ ক্রিমিনাল কোর্টের বরাত দিয়ে এসপিএ’র প্রতিবেদনে বলা হয়, বিচার চলাকালে ওই তিন নারীকে ছেড়ে দেওয়ার প্রার্থনা করা হয়। পরে আদালত তা বিবেচনায় নিয়ে তাদের অস্থায়ী মুক্তি দেন। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, তাদের মামলা চলবে। পূর্ণাঙ্গ সিদ্ধান্তে না পৌঁছানো পর্যন্ত বিচারচলাকালে ওই তিন নারীর উপস্থিতির ওপর ভিত্তি করে তাদের মুক্তি দেওয়া হয়েছে। গত বছর মে মাসে প্রায় ১১ কর্মীকে আটক করা হয়। তাদের মধ্যেই ওই তিন নারী অধিকারকর্মীকে মুক্তি দেওয়া হলো।