রেলের দ্বিগুণ মূল্যে টিকেট বিক্রি প্রতিবাদ করায় মাথা ফাটিেয় দেয় যাত্রীর

নিউজ ডেস্ক: ময়মনসিংহের গৌরীপুর রেলস্টেশনে টিকেট কাউন্টারে দ্বিগুণ মূল্যে টিকেট বিক্রি করছিলে বিক্রেতা। এ ঘটনার প্রতিবাদ করেছিলেন টিকেট করতে আসা মোখলেছুর রহমান মোখলেছ (৬০) নামে এক প্রবীণ যাত্রী। তাকে পিটিয়ে মাথা ফাটিয়ে গুরুতর আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মারাত্মক জখম নিয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় তিনি এখন হাসপাতালে!

সোমবার দুপুরে গৌরীপুর রেলওয়ে স্টেশনে বেসরকারি (মালিকানা) ট্রেন চলাচল প্রতিষ্ঠানের টিকিট কাউন্টারে এই ঘটনা ঘটে। আহত যাত্রী গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন। ঘটনার পর থেকে টিকিট বিক্রেতা বিপ্লব পলাতক রয়েছে।

স্থানীয় ও স্টেশন সূত্রে জানা গেছে, মারধরের শিকার মোখলেছুর রহমান মোখলেছ একজন অবসরপ্রাপ্ত পোস্ট মাস্টার। তার বাড়ি গৌরীপুর উপজেলার সহনাটি ইউনিয়নের পাছার গ্রামে। সোমবার দুপরে তিনি গৌরীপুর থেকে জয়দেবপুর যাওয়ার জন্য বলাকা এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকিট সংগ্রহ করতে স্টেশনের টিকিট কাউন্টারে যান। ওই সময় টিকিট কাউন্টারে থাকা মনিরুজ্জামান বিপ্লব টিকিটের দাম নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে বেশি দাবি করলে মোখলেছুর রহমান প্রতিবাদ করেন।

বেশি মূল্যে ট্রেনের টিকিট বিক্রির প্রতিবাদ করায় টিকেট বিক্রেতা নির্মমভাবে পেটালো ট্রেনযাত্রী প্রবীণকে

এ নিয়ে দুজনের মধ্যে বাক-বিতণ্ডা হলে বিপ্লব ক্ষিপ্ত হয়ে মোখলেছুর রহমানকে লাঠি দিয়ে বেধড়ক পেটায়। একপর্যায়ে কাউন্টারে থাকা স্টিলের স্কেল দিয়ে মোখলেছুর রহমানের মাথা ও মুখমণ্ডলে আঘাত করে। তার মাথা ফেটে যায়। তিনি রক্তাক্ত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

এসময় মোখলেছুর রহমানের ছেলে সাজিদুল ইসলাম রেলওয়ে স্টেশনের কাছাকাছি ছিলেন। খবর পেয়ে তিনি দ্রুত স্টেশনে গিয়ে বাবাকে উদ্ধার করে গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান।

মোখলেছুর রহমান মোখলেছ বলেন, আমি ট্রেনের টিকিট কাউন্টারে গিয়ে জয়দেবপুর স্টেশনের টিকিট চাইলে বিপ্লব অতিরিক্ত টাকা ছাড়া সিট সহ টিকিট দিতে অস্বীকৃতি জানান। এরপর আমি তাকে ‘বলি আমি অসুস্থ বৃদ্ধ মানুষ, ন্যায্য মূল্যে শ্রীপুরের একটি সিটসহ ট্রেনের টিকিট দিন। তখন বিপ্লব টিকিট না দিয়ে আমার টাকা আটকে রাখে। আমি প্রতিবাদ করলে সে আমাকে প্রকাশ্যে মারধর করে মাথা ফাটিয়ে দেয়।’

যাত্রীদের অভিযোগ, ‘বিপ্লবের সঙ্গে টিকিট কালোবাজারীদের যোগসূত্র রয়েছে। সে কাউন্টারে প্রকাশ্যেই দ্বিগুণ মূল্যে টিকিট বিক্রি করে। কিন্তু রেলওয়ের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ কখনো তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয় না।’

গৌরীপুর রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশন মাস্টার আবদুর রশিদ বলেন, ‘শুনেছি বেসরকারি ট্রেনের টিকিট কাউন্টারের সামনে একজন ট্রেন যাত্রীকে বিপ্লব মারধর করেছে। তবে বিপ্লব আমাদের রেলওয়ের কর্মকচারী না হওয়ায় তার ওপর আমাদের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। তবে বিষয়টি আমারা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জকে জানিয়েছি।’

এ বিষয়ে বক্তব্য নেওয়ার জন্য অভিযুক্ত মনিরুজ্জামান বিপ্লবের মুঠোফোনে যোগাযোগ করে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

আরও পড়ুনঃ সুন্দরবন থেকে হরিণের মাংস, মাথা ও চামড়া উদ্ধার

ময়মনসিংহ রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘ট্রেনযাত্রীকে মারধরের ঘটনাটি আমরা শুনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এখনো কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’