নিউজিল্যান্ডের রেডিও টিভিতে জুমার নামাজ সরাসরি সম্প্রচার

নিউজ ডেস্ক:  নিউজিল্যান্ডের রাষ্ট্র পরিচালিত রেডিও এবং টেলিভিশনে আজ শুক্রবারের জুমার নামাজ সরাসরি সমপ্রচার করা হবে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্নের নির্দেশে এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের আল নূর এবং লিনউড মসজিদে গত শুক্রবার জুমার নামাজরত মুসল্লিদের ওপর হামলার পর দ্বিতীয়বারের মতো শহরটি পরিদর্শনকালে গণমাধ্যমকে আরডার্ন একথা জানান।

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী বলেন, জুমার নামাজের সময় হামলা হয়েছিল। তাই এসময় আমরা যে মুসলিমদের পাশে আছি, তা বোঝানোর জন্যই এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তিনি জানান, তারা ক্রাইস্টচার্চে মেমোরিয়াল সার্ভিস আয়োজনের পরিকল্পনা করছেন। সরকার এতে নিউজিল্যান্ডের সবাইকে সম্পৃক্ত করতে চায়। নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর অংশ হিসেবে এমনটা করা হচ্ছে বলে একাধিক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম থেকে জানা গেছে। পাশাপাশি নিহতদের স্মরণে দুই মিনিটের নীরবতা পালন করা হবে।

জানা গেছে, কোনো নৃশংস ঘটনার পর নিউজিল্যান্ডে সাধারণত এক মিনিটের নীরবতা পালন করা হয়ে থাকে। তাবে ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে ভয়াবহ ও বর্বরোচিত হামলার কারণে দুই মিনিটের নীরবতা পালনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

গত শুক্রবার আল নূর এবং লিনউড মসজিদে পরপর হামলা করে ৫০ জনকে হত্যা এবং ৫০ জনকে আহত করে ব্রেনটন টারান্ট নামের এক ২৮ বছর বয়সী অস্ট্রেলীয় নাগরিক। হামলার ৩৬ মিনিট পর তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় স্থানীয় পুলিশ। নিউজিল্যান্ড প্রধানমন্ত্রী আরডার্ন এটাকে সন্ত্রাসী হামলা বলে উল্লেখ করেন। মর্মান্তিক এ সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের পর প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা শোকাহত হূদয়ে হতাহতদের পরিবারের প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করেছেন।

বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা গেছে, সহমর্মিতা জানাতে তিনি কালো পোশাকের সঙ্গে হিজাবের মতো করে মাথায় কালো ওড়না জড়িয়েছেন। তার চোখ দিয়ে অশ্রু ঝরেছে। এছাড়াও সহানুভূতি প্রকাশমূলক বক্তব্যের শুরুতে তাকে ‘আসসালামু আলাইকুম’ বলতে শোনা গেছে। তিনি বিশ্বের মুসলিম সম্প্রদায়ের মনের গভীরে ঠাঁই করে নিয়েছেন। তার সহমর্মিতায় মুগ্ধ হয়েছে গোটা মুসলিম বিশ্ব।