বঙ্গবন্ধু আজীবন দেশের অসহায় মানুষের মুক্তির সংগ্রাম করেছেন: এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী

মোঃমনোয়ার হোসেন মনিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি:এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আজীবন এদেশের অসহায় গরীব-দু:খী মানুষের মুক্তির সংগ্রাম করেছেন। বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে পরাধীনতার শৃংখল থেকে আমরা স্বাধীন হতে পারতাম না। পাকিস্তানী শাসক-শোষক গোষ্ঠীর পরাধীনতার শৃংখল থেকে এদেশর মানুষের মুক্তির সংগ্রাম করতে গিয়ে জীবন-যৌবনের অধিকাংশ সময় জেল-জুলুম ও নির্যাতনের শিকার হয়েছেন।

রোববার দলীয় কার্যালয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র কাজী মাহমুদুল হাসানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি আরো বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট যারা বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার মধ্যদিয়ে এদেশের ইতিহাস থেকে বঙ্গবন্ধুর নাম মুছে ফেলতে চেয়েছিলেন, তারা নিজেরাই আজ ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর ডাকে ১৯৭১ সালে এদেশের কৃষক, শ্রমিক, নান ধর্ম-বর্ণের মানুষসহ আমজনতা স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলো। দেশ স্বাধীনের পর বঙ্গবন্ধু তার জীবদ্দশায় এদেশের মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তির সংগ্রাম করে গেছেন। বঙ্গবন্ধু বিশ্বের বুকে বাঙ্গালী জাতি মাথা উঁচু করে বেচে থাকার স্বপ্ন দেখতেন।

আজ তার সুযোগ্য কন্যা দেশ রত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন। ইতোমধ্যে দেশকে মধ্যমায়ের দেশে পরিণত করেছেন। দেশের উন্নয়নের রোল মডেল বিশ্বের বিভিন্ন দেশ গ্রহন করছে। গ্রামকে শহরের সুবিধা দিতে দিতে ইতোমধ্যে জননেত্রী শেখ হাসিনা নানা বাস্তবমুখী পদক্ষেপ গ্রহন করেছেন। দেশের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক ফজলুর রহমানের পরিচালনায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আবুল কালাম আজাদ, আওয়ামী লীগ নেতা জিএম মজিদ, উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকার প্রার্থী নাজমা খানম, আব্দুর রাজ্জাক, অ্যাড. বশির আহম্মেদ খান, আমজাদ হোসেন, কামরুজ্জামান কামরুল, জেলা পরিষদের সদস্য গৌতম চক্রবর্তী, কৃষকলীগের সাধারন সম্পাদক আবুল ইসলাম, প্রভাষক আবুল হাসান, এরশাদ আলী, রুহুল আমিন, ইউপি চেয়ারম্যান গাজী মাযাহারুল আনোয়ার, মনিরুজ্জামান মনি, শেখর চন্দ্র রায়, আব্দুল হামিদ, আওয়ামী লীগ নেতা প্রকৌশলী আলমগীর হোসেন, উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি দেবাশীষ সরকার বাবু, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক উত্তম চক্রবর্তী বাচ্চু, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক মুরাদুজ্জামান মুরাদ প্রমূখ।

পরে উপজেলা ছাত্রলীগের এবং লাউড়ী-রামনগর কামিল মাদরসার আয়োজনে পৃথক বঙ্গবন্ধুর জন্ম বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য। পৃথক এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মুরাদুজ্জামান মুরাদ এবং মাদরাসা অধ্যক্ষ কেএম মুফিজুর রহমান।

অপরদিকে দিবসটি উপলক্ষে এদিন সকালে উপজেলা শিক্ষা অফিসের আয়োজনে উপজেলা চত্বর থেকে একটি বিশাল আনন্দ র‌্যালি বের হয়। চিত্রাংকন, কুইজ প্রতিযোগীতা,র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন ইউএনও আহসান উল্লাহ শরিফী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পৌর কাজী মাহমুদুল হাসান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইয়েমা হাসান, অধ্যক্ষ রবিউল ইসলাম ফারুকী, নুরুজ্জামান, ওসি (তদন্ত) এনামুল হক প্রমূখ। র‌্যালি বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা-কর্মীসহ বিপুল সংখ্যক সাধারন মানুষ অংশ নেয়। এর আগে উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা আওয়ামীলীগ, বিভিন্ন সামজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ সর্বস্তরের জনতা ,ঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম/জাহিদ।