ক্রাইস্টচার্চের আঘাত ভুলতে মাঠে নামছেন সৌম্যরা

নিউজ ডেস্ক:  ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে হামলার ঘটনার খুব কাছে ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়রা। ওই হামলার কারণে হ্যাগলি ওভালের শেষ টেস্ট বাতিল করা হয়। আগে ভাগেই দেশে ফিরিয়ে আনা হয় ক্রিকেটারদের। ঘটনার পর থেকে মানসিক অবসাদে ভুগছেন ক্রিকেটাররা। তবে ঘরে আবদ্ধ থাকলে ওই অবসাদ আরও বাড়তে পারে। তাই সৌম্য সরকার, সাদমান ইসলাম এবং মোহাম্মদ মিঠুন খেলায় ফেরার কথা জানিয়েছেন।

ঢাকা প্রিমিয়াম ডিভিশন ক্রিকেট ক’দিনের বিরতি দিয়ে মঙ্গলবার থেকে মাঠে গড়াবে। ওয়ানডে ফরম্যাটের ওই ক্রিকেটে খেলার কথা জানিয়েছেন সৌম্য। বাংলাদেশ দলের ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার বলেন, ‘আমি আগামীকাল (মঙ্গলবার) আবাহনীর হয়ে খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ মাশরাফির সঙ্গে কথা বলে খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানান সৌম্য। পরিবার বাইরে থাকায় তিনি ঢাকায় একাকী অনুভব করছেন বলেও জানান।

তার ফেরা নিয়ে বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি মর্তুজা বলেন, ‘আমার মতে, ওই আঘাত কাটিয়ে ওঠার সবচেয়ে ভালো উপায় ক্রিকেটে ফেরা।’ বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের আরেক সদস্য মিঠুনও খেলবেন বলে জানা গেছে।

ওদিকে বাংলাদেশ দলের হয়ে টেস্ট খেলা সাদমানও ডিপিএলে খেলবেন বলে জানিয়েছেন, ‘আগামীকাল খেলতে পারবো কিনা জানি না, আমার পিঠে সামান্য ব্যথা আছে। তবে খেলার অবস্থায় ফিরলেই আমি খেলবো।’

সাদমানের ক্রিকেটে ফেরার ব্যাপারে তার বাবা (বিসিবি কর্মকর্তা) শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘আমি তাকে দ্রুতই খেলার জন্য বলেছি। ঘরে বসে থাকলে এটা আরও চাপ বাড়াবে। অনেক আত্মীয় তাকে ওই ঘটনা নিয়ে নানান প্রশ্ন করছে। যা নিয়ে কথা বলতে সে ভালোবোধ করছে না।’

এর আগে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন ক্রিকেটারদের নিউজিল্যান্ডের হামলায় পাওয়া ওই মানসিক আঘাত কাটিয়ে উঠতে নিজেদের মতো করে কিছু সময় কাটাতে বলেন। খেলাকে কিছুদিনের জন্য ছুটি দেওয়ার পরামর্শ দেন। পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে বলেন। ক্রিকেটাররা স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরলে খেলায় ফেরার কথা বলেন তিনি।