যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেদন মানুষের চিন্তার প্রতিফলন: আমির খসরু

নিউজ ডেস্ক:    একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ও দেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতর প্রকাশিত প্রতিবেদনকে বাংলাদেশের মানুষের চিন্তার প্রতিফলন বলে মনে করছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

এগ্রিকালচারিস্ট অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-এ্যাবের নতুন কমিটির হয়ে শনিবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এই অভিমত ব্যক্ত করেন।

মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের প্রতিবেদনকে দেশের ভাবমূর্তির জন্য ‘খুবই ক্ষতির’ উল্লেখ করে আমির খসরু বলেন, ‘বিশ্বের সামনে জাতি হিসেবে এটা একটা বিব্রতকর অবস্থা। সেটা থেকে বেরিয়ে আসতে হলে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের ওই প্রতিবেদনে যে কথাগুলো বলা হয়েছে সেগুলো জনগণের মনের কথা, বাংলাদেশের মানুষের মনের কথা। সারাবিশ্ব আজ জানতে পারছে বাংলাদেশে জাতীয় নির্বাচন নিয়ে কী হয়েছে। এই চরম বাস্তবতা ওই প্রতিবেদনে প্রতিফলিত হয়েছে। বিশ্ববাসী আজ উদ্বিগ্ন। বাংলাদেশের বর্তমান প্রেক্ষাপট নিয়ে গণতান্ত্রকামী দেশগুলো আজকে উদ্বিগ্ন।’

আমির খসরু বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেদনে জাতীয় নির্বাচনকে প্রত্যাখান করা ছাড়াও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা ও তার বিচারকাজ নিয়ে সত্যের প্রতিফলন ঘটানো হয়েছে। বাংলাদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘন, বিচারের নামে প্রহসন, বাংলাদেশের মানুষের জীবনের নিরাপত্তার নিয়ে যে খেলাধুলা চলছে তার প্রতিফলন ঘটেছে এই প্রতিবেদনে। প্রকৃতপক্ষে বাংলাদেশের যে প্রেক্ষাপট তা সঠিকভাবে তুলে ধরা হয়েছে ওই প্রতিবেদনে।’

তিনি বলেন, ‘এই সংকট উত্তরনে সবার একতা জরুরি। এই চ্যালেঞ্জ শুধু বিএনপির না এদেশের প্রত্যেকটা নাগরিকের। তাদের মৌলিক অধিকার ভোটাধিকার কেড়ে নিয়ে, তাদের মালিকানা কেড়ে নেওয়ার ফলে এই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এটা বিএনপি জোটের বিষয় নয়, এটা জাতির বিষয়।’

গ্যাসের মূল্য বাড়াতে গণশুনানির নামে প্রহসন চলছে, প্রতারণা চলছে— এমন মন্তব্য করে বিএনপির এই নেতা বলেন, একশ’ শতাংশ দাম বাড়ানোর পায়তারা চলছে। এতে বাংলাদেশের গরীর মানুষ ও মধ্যবিত্ত, নিম্ন মধ্যবিত্ত মানুষের ওপর বোঝা চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল, এ্যাবের আহ্বায়ক রাশিদুল হাসান হারুন ও সদস্য সচিব জি কে মোস্তাফিজুর রহমান, যুগ্ম আহ্বায়ক গোলাম হাফিজ কেনেডি, শামীমুর রহমান শামীম, শামসুল আলম তোফাসহ নেতারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।