ছাত্রলীগ ছাড়া সব প্যানেলের ভোট বর্জন, ধর্মঘটের ডাক

নিউজ ডেস্ক:   ভোটে অনিয়ম, কারচুপি, জালভোট ও ছাত্রলীগের অধিপত্যের অভিযোগ তুলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনে ভোট বর্জন করেছে ছাত্রলীগ ছাড়া অন্য সব প্যানেল। একই সঙ্গে অবিলম্বে নতুন তফসিল ঘোষণার দাবি জানিয়েছে তারা।

এছাড়াও মঙ্গলবার থেকে ছাত্র ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে প্যানেলগুলো। এ সময় সব ক্লাস বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছে তারা।

সোমবার দুপুর সোয়া ১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে এক সংবাদ সম্মেলনে এই চার প্যানেলের পক্ষ থেকে প্রগতিশীল ছাত্রজোটের ভিপি প্রার্থী লিটন নন্দী এই ঘোষণা দেন।

এ সময় অন্য প্যানেলের প্রার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। ছাত্রদলের প্রতিনিধিরাও এ সময় মধুর ক্যান্টিনে উপস্থিত থেকে তাদের সমর্থন দেন।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, প্রহসন-জালিয়াতির এই নির্বাচন বাতিল করে পুনঃতফসিল ঘোষণা করতে হবে। হলে নয়, নতুনভাবে ভোট হতে হবে একাডেমিক ভবনে। সেই নির্বাচনে ব্যালট বাক্স হতে হবে স্বচ্ছ।

সোমবার সকাল ৮টা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন শুরু হয়। তবে রোকেয়া হলে এক ঘণ্টা দেরিতে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। এছাড়া বস্তাভর্তি ব্যালট পেপার উদ্ধারের ঘটনায় শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের পর প্রভোস্ট পরিবর্তন করে ৩ ঘণ্টা দেরিতে বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হলে ভোট শুরু হয়। সোমবার সকাল ১১টা ১০ মিনিটে কুয়েত মৈত্রী হলে শুরু হওয়া ভোট চলবে বিকেল ৫টা ১০ মিনিট পর্যন্ত।