সিইসির বক্তব্যে থলের বিড়াল বেরিয়ে গেছে: রিজভী

নিউজ ডেস্ক:   প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) বক্তব্যে থলের বিড়াল বেরিয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেছেন, প্যান্ডোরার বাক্স থেকে এখন আসল ঘটনাগুলো বের হতে শুরু করেছে। থলের বেড়ালকে আর বেশিদিন আটকে রাখতে পারলেন না সিইসি। মধ্যরাতের নির্বাচনের আসল সত্যটি মুখ ফসকে বলে ফেলেছেন তিনি।

রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন। রিজভী অভিযোগ করেন, মধ্যরাতের নির্বাচনের হোতা এই সিইসি। আদর্শগত শূন্যতার কারণে তিনি জনগণের বিরুদ্ধে এত বড় অন্যায় করেছেন। ক্ষমতাসীন সরকারকে চিরস্থায়ী করতেই ভোট কেলেঙ্কারির মাধ্যমে দেশের ভবিষ্যৎ রাজনীতি অন্ধকারে ঠেলে দিয়েছেন তিনি।

রিজভী বলেন, সিইসির এ বক্তব্য জাতির কাছে গুরুত্বপূর্ণ দলিল হয়ে থাকবে। একজন প্রধান নির্বাচন কমিশনার একটি নির্বাচনে জনগণের ভোটাধিকার হরণ করে কী করে মধ্যরাতে ব্যালট বাপ পূর্ণ করার অনুমতি দিয়েছিলেন, সেটাই ইতিহাসে থাকবে। জনতার কাছে তাকে জবাবদিহি করতেই হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে রিজভী অভিযোগ করেন, ২৯ ডিসেম্বর মধ্যরাতেই যে নির্বাচন হয়েছে, তা সিইসির কথার মধ্য দিয়েই বেরিয়ে এসেছে। অর্থাৎ ইভিএম নেই বলে মিডনাইট নির্বাচন হয়েছে, এটা তার বক্তব্যে স্পষ্ট। এখন তিনি সেই অজুহাতে আবার কয়েক হাজার কোটি টাকার ইভিএম মেশিন ব্যবহার করতে চাচ্ছেন।

অসুস্থ কারাবন্দি নেত্রী খালেদা জিয়াকে অবিলম্বে গুলশানের বিশেষায়িত ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করানোর দাবি জানান রিজভী। এ ছাড়া ঢাকা বারের নির্বাচনের ফল প্রত্যাখ্যান করে রিজভী বলেন, নানাভাবে অনিয়মের আশ্রয় নিয়ে ঢাকা জেলা বার সমিতির নির্বাচন হয়েছে একতরফা। সরকার এখন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নির্বাচনেও মিডনাইট ভোটের পদ্ধতি অবলম্বন করছে। সাধারণ জনগণের মতো বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতারাও এখন বঞ্চিত।

সংবাদ সম্মেলনে দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, সুকোমল বড়ূয়া, সৈয়দ শামসুল আলম, কেন্দ্রীয় নেতা আবদুস সালাম আজাদ, আসাদুল করীম শাহিন, তাইফুল ইসলাম টিপু, বেলাল আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।