মানুষের কানে মাকড়সার বাসা!বের করলেন ডাক্তার আশিক

মোঃ জাহিদুল ইসলাম জাহিদ,ময়মনসিংহ:

অবিশ্বাস্য মনে হলেও ঘটনাটি একদম সত্য! জীবন্ত মানুষের কানের ভিতরে মাকড়সা বাসা বেধেছে এবং তাও আবার দীব্বি বসবাস করছে!

ঘটনাটি ময়মনসিংহ সদরে,রকি (২৪) নামে এক যুবকের কানের ভিতর জীবন্ত একটা মাকড়সা বাসা বেধেছে এবং সেখানে দীর্ঘ- দিন ধরে আরাম-আয়াসে বসবাস করে আসছিলো।

৭ মার্চ বৃহস্প্রতিবার সন্ধ্যায় “পপুলার মেডিকেল সার্ভিস সেন্টার”এ রকি (২৪) নামে ঐ যুবকটি আসেন এবং ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের নাক-কান ও গলা বিভাগের সহকারি অধ্যাপক- ডাক্তার মোঃ আশিকুর রহমানের কাছে রকি বিস্তারিত বলেন। ডাক্তার আশিকুর রহমানের সহকারী মোঃ তোফাজ্জল হোসেন ও শাফিন জানান, আমাদের স্যার ডাঃ আশিকুর রহমান রকির কথা-বার্তা শুনেন এবং কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা দেন, পরবর্তীতে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখেন রকির কানের পর্দার সামনে মাকড়সা বাসা বেধেছে। 

এ ব্যাপারে, ডাক্তার মোঃ আশিকুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি “ঢাকানিউজ২৪ ডটকম”কে জানন-“গতকাল রাতে আমার কাছে এক রোগী আসে তার কানে ব্যথা নিয়ে, পরে আমি endoscope দিয়ে কান পরীক্ষা করতে গেলে দেখতে পাই জীবন্ত মাকড়সা। প্রথমে মনে হয়েছিল কানের পর্দার ভিতর মাকড়সা। কিছুক্ষণ পর বুঝতে পারলাম কানের পর্দার একটু সামনে সে নিজে জাল তৈরি করে এর ভিতর আটকে গেছে। পিছনে কানের পর্দার সামনে মাকড়সা তৈরি নিজের জাল,এই দৃশ্য দেখে খুব আশ্চর্য হলাম, আল্লাহ সবই পারেন, সুবহানাল্লাহ। তারপর মাকড়সাটি বের করি”।

চিকিৎসক সমাজের আইকন, ধার্মিক, বিনয়ী, সৎ ও আদর্শবান- ময়মনসিংহের অহংকার ও প্রিয় মুখ, তরুণ এই অদম্য মেধাবী ডাক্তার অনেক জটিল ও কঠিন রোগীকে স্বল্প সময়ে, স্বল্প ব্যায়ে অপারেশনের মাধ্যমে সুস্থ্যতা দান করে হাজারো মানুষের প্রসংশা ও ভালোবাসায় সিক্ত হয়েছেন। এছাড়াও তিনি সমাজের অবহেলিত এতিম,অসহায়, প্রতিবন্ধী ও মুক্তিযোদ্ধাদের বিনামূল্যে নাক-কান ও গলাসহ, জটিল ও কঠিন রোগের চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন।

জীবন্ত মানুষের কানে মাকড়সার বাসা দেখে ডায়াগনস্টিক সেন্টারের পরিচালকঃ মোঃ মারুফ আহম্মেদ, আবুল হাসান, সোহেল এবং সাখাওয়াত হোসেন বলেন- এমন ঘটনা জীবনে এই প্রথম দেখলাম। উক্ত ঘটনা জানাজানি হলে ডায়াগনস্টিক সেন্টারের স্টাপ,উপস্থিত রোগীর আত্নীয়-স্বজন এবং আশেপাশের ডায়াগনস্টিক সেন্টারের উৎসুক জনগণ ভিড় জমান।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম/জাহিদ।