১৫ বছর পর নতুন কমিটি পাচ্ছে কুলাউড়া উপজেলা আ’লীগ : মার্চেই সম্মেলন

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি :: জেলার কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন চলতি মার্চ মাসে উপজেলা নির্বাচনের পরপরই অনুষ্ঠিত হবে বলে জেলা ও উপজেলা নেতৃবৃন্দ নিশ্চিত করেছেন। ১৫ বছর পর দলের কাউন্সিলের ঘোষণা হলেও উপজেলা নির্বাচনের কারণে কাউন্সিল নিয়ে নেতাকর্মীদের মাঝে খুব একটা আগ্রহ নেই বলা যায়।

সবশেষে-২০০৪ সালে কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন ও কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়েছিল। সেই সম্মেলনে বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুল মতিনকে সভাপতি ও রফিকুল ইসলাম রেনুকে সাধারণ সম্পাদক করে ৬৭ সদস্য কমিটি গঠন করা হয়েছিল। ৩ বছর মেয়াদী এই কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়েছে বহু আগেই। প্রায় ১৫ বছর ধরে চলমান এই কমিটির সম্মেলন দ্রুত সম্পন্ন করার দাবি ছিলো সর্বস্তরের নেতাকর্মীর।

এদিকে দীর্ঘদিন সম্মেলন না হওয়ার কারণে বর্তমান উপজেলা কমিটির অধিকাংশ নেতৃবৃন্দের অনুপস্থিতি রয়েছে। দলীয় সূত্রে জানা গেছে বর্তমান কমিটির ১৩ জন সদস্য মৃত্যুবরণ করেছে, ৪ জন স্থায়ীভাবে প্রবাসে বসবাস করছেন, বার্ধক্যজনিত কারণে অনেকেই রাজনীতিতে নিষ্ক্রিয়। ফলে নানা কারণে দলটিতে বিরাজ করছিলো স্থবিরতা। কুলাউড়া উপজেলা শাখার সম্মেলনই ছিলো তা থেকে উত্তরণের একমাত্র পথ। দীর্ঘদিন থেকে নেতাকর্মীরা সম্মেলনের দাবি জানালেও তা বাস্তবায়ন হয়নি।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন পর কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার সত্যতা স্বীকার করে দলটির সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রেনু জানান, জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের সাথে কথা হয়েছে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের পর পরই কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। তিনি আরও জানান, অনেক ঘাত-প্রতিঘাত মোকাবিলা করে দলকে সঠিক পথে রেখেছি। ২টি ইউনিয়ন বাদে বর্তমানে উপজেলা কমিটির অধিনস্থ সকল ইউনিট কমিটির সম্মেলন সম্পন্ন হয়েছে। অতীতের যেকোন সময়ের তুলনায় উপজেলাব্যাপী আওয়ামী লীগ অনেক সুসংগঠিত রয়েছে।

মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মিছবাহুর রহমান জানান, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সিদ্ধান্ত মোতাবেক যে সকল উপজেলায় সম্মেলন হয়নি, সেগুলোর সম্মেলন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের পরপরই হবে। যেহেতু দীর্ঘদিন থেকে কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন হয়নি সেহেতু উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের পপরপরই হবে সম্মেলন হবে।