নিম্ন আদালতে খালাস, আপিলে ১১ বছর জেল

নিউজ ডেস্ক:   জেলে যেতে হচ্ছে রাজউকের সাবেক ইস্যু ক্লার্ক মো. শফিউল্লাহকে। দুর্নীতির মামলায় তাকে খালাস দিয়েছিলো নিম্ন আদালত। হাইকোর্ট খালাসের রায় বাতিল করে তাকে ১১ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে।

বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কেএম হাফিজুল আলমের ডিভিশন বেঞ্চ আজ রবিবার এ রায় দেন। রায়ের অনুলিপি পাওয়ার ১৫ দিনের মধ্যে তাকে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে।

রায়ের বিষয়টি জানান ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিনউদ্দিন মানিক। ঘটনার বিবরণে দেখা যায়, অসত্ উদ্দেশে ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে তার অর্পিত দায়িত্ব ও কর্তব্য অবহেলার মাধ্যমে রাজউকের বহুতল ভবনের নকশা অনুমোদন সংক্রান্ত ৫৭টি নথি অথরাইজড অফিসার -১ ও ৩ এর দপ্তরের রেকর্ড রুমে প্রেরণ না করে সেগুলো বিনষ্ট ও গায়েব করায় তার বিরুদ্ধে দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক খন্দকার আখেরুজ্জামান ২০১৩ সনের ১০ অক্টোবর রাজধানীর মতিঝিল থানায় মামলা নং ২১ দায়ের করেন।

এ অভিযোগ আমলে নিয়ে দন্ডবিধির ২০৪ ধারায় ২ বত্সর, ২০১ ধারায় ২ বত্সর এবং ১৯৪৭ সনের দূর্ণীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় ৭ বত্সর মোট ১১ বত্সরের সশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন। আজ থেকে ১৫ দিনের মধ্যে আসামিকে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ। সকল ধারার সাজা এক সাথে চলবে বিধায় আসামীকে মোট ৭ বত্সর কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে।