দ্বিতীয় দিনের বৈঠকে ট্রাম্প-উন

নিউজ ডেস্ক:  পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ে দ্বিতীয় দিনের মতো বৈঠকে বসেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জন উন।

বৃহস্পতিবার সকালে শুরু হওয় এ বৈঠকের দিকে এখন সারাবিশ্ব তাকিয়ে রয়েছে বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

হ্যানয়ের পাঁচ তারকা হোটেল ‘মেট্রোপোলে’ বুধবার দুই দিনব্যাপী এ বৈঠক শুরু হয়। এদিন গণমাধ্যমের সামনে করমোর্দনের পর আলোচনা ও নৈশভোজে যোগ দেন এই দুই রাষ্ট্রপধান।

এবারের বৈঠকে ট্রাম্প ও কিম কোরীয় উপদ্বীপকে পারমাণবিক অস্ত্রমুক্ত করার পরিকল্পনা নিয়ে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ট্রাম্প এই সম্মেলন থেকে বড় ধরনের কিছু প্রত্যাশা না করার কথা ব্যক্ত করে সাংবাদিকদের বলেন, উত্তর কোরিয়ার নিরস্ত্রীকরণ চুক্তির ব্যাপারে তার কোন তাড়া নেই।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, ‘দেশটির নিরস্ত্রীকরণের ব্যাপারে সবদিক বিবেচনা করে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। আমরা সঠিক চুক্তিটিই করতে চাই।’ তিনি মনে করেন কিমের সঙ্গে তার এবারের বৈঠক ‘খুবই সফল’ হবে।

গত বছর সিঙ্গাপুরে ডোনাল্ড ট্রাম্প ও কিম জং উনের মধ্যে অনুষ্ঠিত প্রথম বৈঠকের এ বিষয়সহ অন্যান্য ইস্যুতে খুব সামান্যই অগ্রগতি হয়েছে।

২০১৮ সালের ১২ জুন সিঙ্গাপুরের সেন্তোসা দ্বীপে প্রথমবারের মতো বৈঠকে বসেন ডোনাল্ড ট্রাম্প ও কিম জং উন। সেই বৈঠক ছিল উত্তর কোরিয়ার একজন নেতার সঙ্গে ক্ষমতাসীন যুক্তরাষ্ট্রের কোনো প্রেসিডেন্টের প্রথম বৈঠক। সেখানে দীর্ঘদিনের বৈরী দু’দেশ যৌথভাবে কোরিয়া উপদ্বীপকে পারমাণবিক অস্ত্রমুক্ত করার অঙ্গীকার করে।

ওই বৈঠকের পর উত্তর কোরিয়া কোনো পারমাণবিক ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালায়নি। আটক থাকা যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদেরও মুক্তি দেয় তারা। আর যুক্তরাষ্ট্রও ওই বৈঠকের পর দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে বড় ধরনের কোনো মহড়া চালায়নি।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ভিয়েতনাম ছাড়ার আগে ট্রাম্প একটি সংবাদ সম্মেলন করবেন। তবে কিম রাষ্ট্রীয় এক সফরের জন্য ভিয়েতনামে অবস্থান করবেন এবং এই সপ্তাহান্তে তিনি হ্যানয় ছাড়বেন।