প্রথমবারের মতো নারী রাষ্ট্রদূত নিয়োগ দিল সৌদি

নিউজ ডেস্ক:  যুক্তরাষ্ট্রে সৌদি আরবের পরবর্তী রাষ্ট্রদূত হিসেবে প্রিন্সেস রিমা বিনতে বন্দর আল-সৌদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মতো কোনো নারীকে রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দিল সৌদি আরব।

শনিবার সৌদি আরবের এক রাজকীয় ডিক্রিতে রাষ্ট্রদূত হিসেবে প্রিন্সেস রিমা নিয়োগ নিশ্চিত করা হয় বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে শৈশবের একাংশ কাটানো প্রিন্সেস রিমা এমন এক সময়ে যুক্তরাষ্ট্রে সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন, যখন সৌদি নাগরিক সাংবাদিক জামাল খাসোগির হত্যাকাণ্ড নিয়ে আন্তর্জাতিকভাবে ব্যাপক সমালোচনার মুখে রয়েছে রাজতন্ত্রের দেশটি।

জামাল খাসোগির নিখোঁজ হওয়া নিয়ে প্রথম দিকে সৌদি আরব কিছু জানে না বলে দাবি করলেও এক পর্যায়ে তারা তুরস্কে সৌদি কনস্যুলেটের ভেতরে জামাল খাসোগিকে হত্যার কথা স্বীকার করে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রিন্সেস রিমা যুক্তরাষ্ট্রে রাষ্ট্রদূত হিসেবে সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের ছোট ভাই প্রিন্স খালিদ বিন সালমানের স্থলাভিষিক্ত হবেন। প্রিন্স খালিদ বিন সালমানকে সৌদি আরবের উপ প্রতিরক্ষা মন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

প্রিন্সেস রিমার বাবা বন্দর বিন সুলতান আল-সৌদও যুক্তরাষ্ট্রে সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বন্দর বিন সুলতান ১৯৮৩ থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত ছিলেন। বাবার ওই দায়িত্বের কারণেই প্রিন্সেস রিমার শৈশবের একটি অংশ কাটে ওয়াশিংটন ডিসিতে। এছাড়া তিনি জর্জ ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি থেকে মিউজিয়াম স্টাডিজ বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রিও অর্জন করেন।