ইএমকে সেন্টারে ওয়াই.এস.এস.ই-এর “ফাইনান্সিং স্ট্রাটেজী ফর স্টার্ট আপ”

দেশের উদীয়মান উদ্যোক্তারা সবচেয়ে বেশী ভুক্তভোগী হন অর্থায়নের অভাবে। এমনকি অনেকে আইডিয়া চুরি হওয়ার ভয়ে বিনিয়োগকারীদের সামনে আইডিয়া উপস্থাপনই করতে ভীত হয়ে যান। এজন্যে ভবিষ্যতের উদ্যোক্তা উন্নয়নের স্বার্থে গত ২০ই ফেব্রুয়ারী রাজধানীর ইএমকে সেন্টার-এ সামাজিক উদ্যোক্তা বিষয়ক বাংলাদেশের একমাত্র যুব সংগঠন ওয়াই.এস.এস.ই এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল “ফাইনান্সিং স্ট্রাটেজী ফর স্টার্ট আপ” শীর্ষক কর্মশালা। দেশের বিভিন্ন পর্যায়ের উদীয়মান ও বিদ্যমান উদ্যোক্তাদের জন্যই “ইয়ুথ স্কুল ফর স্যোসাল এন্ট্রাপ্রেনারস” এই কর্মশালার আয়োজন করেছিল।

কর্মশালার পুরোটাই জুড়েই বিদ্যমান ছিল দেশের শীর্ষস্থানের অর্থায়ন বিশারদ, অভিজ্ঞ ও শিক্ষকদের আলোচনা। কর্মশালায় প্রধান অতিথির আসন অলংকৃত করেছেন সাবেক গভর্নর ও খ্যাতনামা অর্থনীতিবিদ, ড. আতিউর রহমান। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিজনেস ভ্যালুয়েশন ইন্টারন্যাশনাল ইউকে-এর প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা অংশীদার, ড. ফার্নান্দ স্কারপাতি এবং লিড-এর প্রেসিডেন্ট, আশফাক জামান। রিসোর্স পার্সন হিসেবে কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থায়ন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও গিকে স্যোসাল-এর সহপ্রতিষ্ঠাতা ও হেড অব বিজনেস, মো: সাইমুম হোসাইন, শান্তা মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি-এর অর্থায়ন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক, রুবায়্যিত সাইমুম চৌধুরী। এছাড়াও স্টার্ট আপের জন্য অর্থায়নের সুযোগ ও সম্ভাবনসমূহ উপস্থিত সকলে সামনে প্রাণবন্ত কৌশলে তুলে ধরেন নেপাল বাংলাদেশ ব্যাংক লিমিটেড ও আইএফসি মানি ট্রান্সফার (ইউকে) লিমিটেড এর চেয়ারম্যান, জালাল আহমেদ।

আমাদের দেশে উদ্যোক্তাদের অর্থায়নের সুযোগ, সম্ভাবনা ও অন্তরায়গুলো সামগ্রিকভাবে উঠে এসেছিল এই কর্মশালার মাধ্যমে এমনটিই মনে করে ইয়ুথ স্কুল ফর স্যোসাল এন্ট্রাপ্রেনারস এর প্রেসিডেন্ট ও প্রতিষ্ঠাতা, শেখ মোহাম্মদ ইউসুফ হোসেন। অর্থায়নকে অনেকেই বেশ জটিল একটি বিষয় হিসেবে ধারণা করে থাকেন। কিন্তু এটিকে উদ্যোক্তাদের বোধগম্য করতেই ওয়াই.এস.এস.ই ভবিষ্যতে এ ধরনের প্রয়াস অব্যাহত রাখবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।