জার্মানিতে বছরে দুই লাখ ষাট হাজার অভিবাসীর প্রয়োজন

নিউজ ডেস্ক: জার্মানিতে অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে হলে প্রতি বছর দুই লাখ ৬০ হাজার অভিবাসীর প্রয়োজন পড়বে। সম্প্রতি জার্মানির ব্যার্টেলসমান ফাউন্ডেশনের এক গবেষণা জানিয়েছে, আগামী ৪০ বছর পর্যন্ত জার্মানিতে প্রতিবছর গড়ে কমপক্ষে দুই লাখ ৬০ হাজার অভিবাসীর প্রয়োজন দেখা দেবে৷

জার্মানির ব্যবসায়ী সংগঠনগুলি দীর্ঘদিন থেকেই জার্মানির সরকারকে দক্ষ শ্রমিক কর্মী অভিবাসন আইন পাস করার দাবি জানিয়ে আসছিলেন। জার্মানিতে আরও দক্ষ শ্রমজীবীদের আনার বিষয়ে জার্মানির কর্মসংস্থান সংগঠন ও আরও তিনটি অর্থনৈতিক ও ব্যবসায়িক সংগঠনগুলি জার্মানিতে দক্ষ প্রশিক্ষিত কর্মীদের জন্য অভিবাসন আইন করার জন্য চাপ দিচ্ছিলেন। কিন্তু অভিবাসীদের বিষয়ে জার্মানির রাজনৈতিক দলগুলি দীর্ঘ সময় ধরে বিতর্ক করলেও কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারছিলেন না। জার্মানির ব্যবসায়ী সংগঠনগুলির অব্যাহত চাপের মুখে গত বছর ডিসেম্বর মাসে কর্মজীবী অভিবাসীদের জন্য জার্মানির সরকার নতুন আইন তৈরি করেছেন।

জার্মানির ব্যার্টেলসমান ফাউন্ডেশন তাদের জরিপে দেখিয়েছেন, সম্প্রতি জার্মানিতে জন্মহার বৃদ্ধি, নারী ও পুরুষদের কর্মক্ষেত্রে প্রবেশের হার বৃদ্ধি পেলে ও অবসরে যাওয়ার সময় ৭০ বছর পর্যন্ত করলেও জার্মানির অভ্যন্তরীণ বাজার থেকে প্রয়োজনীয় লোকবল সংগ্রহ ক্রমশই কঠিন হয় পড়েছে। তারা জানিয়েছে আগামী ২০৬০ সাল পর্যন্ত জার্মানিতে প্রতি বছর ২৬০,০০০ জন অভিবাসীর প্রয়োজন পড়বে। সেই হিসাবে আগামী ৪০ বছরে জার্মানিতে এক কোটি ষাট লাখ কর্মক্ষম অভিবাসীর প্রয়োজনীয়তা দেখা দেবে।

কর্মক্ষম অভিবাসীদের মধ্য এক লাখ ১৪ হাজার ইইউ সদস্য দেশগুলি থেকে সংগৃহীত হলেও ইউরোপের বাইরে থেকে এক লাখ ৪৬ হাজার অভিবাসী আনবার প্রয়োজন পড়বে। ব্যার্টেলসমান ফাউন্ডেশন পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ইয়র্গ ড্র্যাগার বলেছেন সরকারি নিবন্ধন অনুযায়ী ২০১৭ সালে মাত্র ৩৮,০০০ কর্মক্ষম অভিবাসী জার্মানিতে এসেছেন।

জার্মানির ইনস্টিটিউট ফর এমপ্লয়মেন্ট রিসার্চ (আইএবি) এবং কোবর্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণার ওপর ভিত্তি কর ব্যার্টেলসমান ফাউন্ডেশন এই জরিপটি প্রকাশ করেছে।