সৈয়দ আশরাফের জানাজায় লাখো মানুষের ঢল

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি প্রিয়নেতাকে একনজর দেখতে কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া মাঠে সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের নামাজে জানাজায় লাখো মানুষের ঢল নেমেছে। অশ্রুসিক্ত চোখে প্রিয়নেতার আত্মার মাগফেরাত কামনায় সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ আজ এক কাতারে এসেছেন। প্রিয় মানুষকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে কিশোরগঞ্জ জেলাসহ আশপাশের অন্যান্য জেলার মানুষও এসেছেন।

জানাজায় অংশ নেওয়া সকলেরই একটাই কথা- বাংলাদেশের মাটিতে সৈয়দ আশরাফ একজনই। এমন সৎ, মেধাবী, দুর্নীতিমুক্ত নেতা দ্বিতীয়জন আর জন্মাবেন না। কিশোরগঞ্জের সন্তান সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বাংলাদেশের গর্ব ও অহংকার।

প্রিয়নেতাকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে অনেকে আবেগ আপ্লুত হয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন। সকাল থেকেই শহরের প্রতিটি রাস্তা অলিগলি দিয়ে হাজার হাজার মানুষ শোলাকিয়া মাঠে জড়ো হোন। এতদিন যে মাঠে ঈদের নামাজের জামাত আদায় করা হয়েছে, ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করা হয়েছে, আজ সে মাঠে আবার লাখো মানুষের ঢল। তবে প্রিয়নেতা সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের নামাজের জানাজায় অংশ নিয়ে তার আত্মার মাগফেরাত কামনা করে প্রিয়নেতাকে শ্রদ্ধার সঙ্গে বিদায় জানাতে।

প্রিয়নেতা ও রাজনৈতিক ব্যক্তি কিশোরগঞ্জের-১ আসনের পাঁচবারের সংসদ সদস্য, আওয়ামী লীগের প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে লাখো মানুষের পাশাপাশি শোলাকিয়া মাঠে উপস্থিত ছিলেন কিশোরগঞ্জের বাকি পাঁচটি আসনের সংসদ সদস্যসহ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্যরা।

কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠে রোববার দুপুর সোয়া ১টায় প্রয়াত জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ জানাজায় লাখো লাখো মানুষের ঢল নেমেছে।

শোলাকিয়া মাঠে একটি মঞ্চ তৈরি করে সেখানে সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মরদেহ রাখা হয়। জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় জানাজা নির্বিঘ্নে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

তা ছাড়া, জানাজা সুশৃঙ্খল করতে মাঠে সাদা রঙের লাইন করা হয়েছিল। পুরো শোলাকিয়া মাঠে লাগানো ছিল শব্দযন্ত্র। শৃঙ্খলা ঠিক রাখতে শোলাকিয়া মাঠে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিপুল সংখ্যক সদস্যকেও মোতায়েন করা হয়েছিল।

প্রথমে হেলিকপ্টারযোগে মরদেহ কিশোরগঞ্জে নিয়ে আসা হয় দুপুর ১২টায়। তারপর দুপুর সোয়া ১টায় কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠে দ্বিতীয় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সম্মান জানানো হয় প্রিয়নেতা মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আশরাফকে।

দুপুর ২টায় ময়মনসিংহ আঞ্জুমান ঈদগাহ মাঠে সৈয়দ আশরাফের তৃতীয় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। সেখান থেকে মরদেহ ঢাকায় নিয়ে আসার পর বাদ আসর বনানী কবরস্থানে তাকে সমাহিত করা হবে।