সৈয়দ আশরাফের অপেক্ষায় ঐতিহাসিক শোলাকিয়া

সিনিয়র রিপোর্টার: তিনি ছিলেন পরিচ্ছন্ন রাজনীতির প্রতীক। সততা ও সাহসিকতায় নিজেকে তুলে ধরেছিলেন একজন আদর্শ রাজনীতিকের আসনে। এমন নির্মোহ রাজনীতিবিদ বর্তমানে সত্যিই বিরল।

এমনই এক মানুষ ছিলেন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। দল ও রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে থেকেও সৈয়দ আশরাফ সুযোগ পেলে শেকড়ের টানে ছুটে যেতেন কিশোরগঞ্জে। কিশোরগঞ্জের মানুষ পরম মমতায় আপন করে নিয়েছিল মহান এই নেতাকে। তাইতো দলমত নির্বিশেষে জেলাবাসীর কাছে সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম ছিলেন অতি আদরের।

কিশোরগঞ্জের মানুষ অধীর অাগ্রহে অপেক্ষা করছেন মহান এই নেতার জন্য। বেদনাবিধুর চিত্তে শেষ দেখা অার চোখের জলে শেষ বিদায়ের জন্য প্রস্তুত তারা। রাত পোহালে কিশোরগঞ্জে আসছে সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মরদেহ।

রোববার দুপুর ১২টায় কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠে প্রয়াত আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে হেলিকপ্টারযোগে সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মরদেহ কিশোরগঞ্জ আনা হবে।

প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক সহকারী কৃষিবিদ মশিউর রহমান হুমায়ুন বলেন, সৈয়দ অাশরাফুল ইসলামের মরদেহের সঙ্গে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল অালম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার নওফেল, সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের একমাত্র মেয়ে সৈয়দা রীমা ইসলাম, তিন ভাই মেজর জেনারেল অব. সৈয়দ শাফায়াতুল ইসলাম, ড. সৈয়দ মঞ্জুরুল ইসলাম, ড. সৈয়দ শরীফুল ইলাম, দুই বোন ডা. সৈয়দা জাকিয়া নূর লিপি ও সৈয়দা রাফিয়া নূর রুপাসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা আসবেন।

শহরের পুরাতন স্টেডিয়ামে সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু জানাজায় বিপুল মানুষের উপস্থিতির বিষয়টি মাথায় রেখে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পুরাতন স্টেডিয়ামের বদলে শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠে জানাজার স্থান নির্ধারণের প্রস্তাব করা হয়। তাই শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠে জানাজার স্থান নির্ধারণ করা হয়।

শনিবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে তার মরদেহ দেশে আনা হয়। গত বছরের ৩ জুলাই থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত বর্ষিয়ান রাজনীতিক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সদ্য সমাপ্ত নির্বাচনে কিশোরগঞ্জ-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে বিপুল ভোটে জয়ী হন তিনি। এ নিয়ে কিশোরগঞ্জ-১ অাসন থেকে পাঁচবার এমপি নির্বাচিত হন সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।