ঐক্যফ্রন্টের সাত এমপি শপথ নিচ্ছেন না

নিউজ ডেস্ক:  একাদশ সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী নতুন এমপিরা বৃহস্পতিবার শপথ নেন। সকাল ১১টায় সংসদ ভবনের শপথকক্ষে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী নির্বাচিতদের শপথবাক্য পাঠ করান। নির্বাচন কমিশনের (ইসি) পাঠানো গেজেট  বুধবার সংসদ সচিবালয়ে পৌঁছেছে। সংসদের পক্ষ থেকে শপথ অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার জন্য বিজয়ীদের কাছে আমন্ত্রণপত্র পাঠানো হয়েছে।

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটভুক্ত শরিক দলগুলোর এমপিরা আজ শপথ নেয় । তবে বিএনপি নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাত এমপি আজ শপথ নিচ্ছেন না বলে জানা গেছে। পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে ইসিতে স্মারকলিপি দেওয়া হবে। এতে ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনের ফল বাতিল ও নতুন নির্বাচনের দাবি জানানো হবে।

শপথের বিষয়ে ঐক্যফ্রন্টের শরিক দল গণফোরামের সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ জানিয়েছেন, নির্বাচনী এলাকা থেকে তিনি মাত্রই ঢাকায় এসেছেন। জোটের সঙ্গে আলাপ করে তিনি সিদ্ধান্ত নেবেন। সংসদ সচিবালয়ের আমন্ত্রণ তার হাতে এখনও পৌঁছায়নি জানিয়ে সুলতান মনসুর বলেন, শপথ নেওয়ার সময় তো আর পেরিয়ে যাচ্ছে না। 

ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচিত সাতজনের মধ্যে পাঁচজন বিএনপির ও দু’জন গণফোরামের। মৌলভীবাজার-২ আসন থেকে জোটের প্রতীক ধানের শীষ নিয়ে গণফোরামের সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ এবং সিলেট-২ আসন থেকে নিজস্ব প্রতীক উদীয়মান সূর্য নিয়ে মোকাব্বির খান বিজয়ী হয়েছেন।

এদিকে ৩০ ডিসেম্বর ২৯৯ আসনে ভোট হয়। তার মধ্যে একটি আসনে কয়েকটি কেন্দ্রের ভোট স্থগিত থাকায় গতকাল নির্বাচন কমিশনের গেজেটে ২৯৮টি আসনের বিজয়ীদের নাম ও ঠিকানা গেজেট আকারে প্রকাশ করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ জোটের আসন সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৮৮টি। বিপরীতে বিএনপিকে নিয়ে গঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আসন মাত্র সাতটি।

মহাজোটের শরিকদের মধ্যে আওয়ামী লীগ ২৫৬টি, জাতীয় পার্টি ২২টি, ওয়ার্কার্স পার্টি তিনটি, জাসদ দুটি, বিকল্পধারা দুটি এবং বাংলাদেশ জাসদ, তরীকত ফেডারেশন ও জাতীয় পার্টি (জেপি) একটি করে আসন পেয়েছে। এ ছাড়া বিএনপি পাঁচটি, গণফোরাম দুটি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা তিনটি আসন পেয়েছেন।