ঐক্যফ্রন্ট ক্ষমতায় গেলে বাকস্বাধীনতা থাকবে না: আইনমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক:  সংসদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়াড়িয়া-৪ আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেছেন, ড. কামাল হোসেন সাংবাদিকদের খামোশ বলে সাংবাদিকদের প্রশ্ন করার অধিকার খর্ব করেছেন। যারা বাকস্বাধীনতার কথা বলে তাদের মুখে এসব মানায় না। ঐক্যফ্রন্ট ক্ষমতায় গেলে জনগণের বাকস্বাধীনতা থাকবে না।

মঙ্গলবার দুপুরে কসবা উপজেলার শিকারপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এক নির্বাচনী জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী আরও বলেন. ঐক্যফ্রন্টের যাদের মনোনয়ন হাইকোর্ট বাতিল করেছে ওই সব এলাকায় পুনরায় মির্জা ফখরুল প্রার্থী নির্বাচন করে চিঠি দিয়েছেন। যা আইনগত ভাবে সঠিক নয়। এ রকম হলে তাদের জন্য পুনরায় আইন প্রণয়ন করতে হবে।

আওয়ামী লীগ নেতা খোরশেদ আলম মৃধার সভাপতিত্বে জনসভায় বক্তৃতা করেন যুবলীগ নেতা আনোয়ার হোসেন, বাদৈর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু জামাল খান প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন কসবা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনিসুল হক ভূইয়া, কসবা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক রাশেদুল কাওছার ভূঁইয়া, এম.জি হাক্কানী, কাজী আজহারুল ইসলাম, রুহুল আমিন ভুইয়া, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি এম.এ আজিজ, সাধারণ সম্পাদক মো. শফিকুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মো. মনির হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন প্রমুখ।

এর আগে মন্ত্রী কসবার খাড়েরা ইউনিয়নের সোনাগাওঁ মাদ্রাসা মাঠে নির্বাচনী যোগ দেন। মঙ্গলবার সকালে মন্ত্রী ঢাকা থেকে ট্রেন যোগে আখাউড়া রেলস্টেশনে এসে নামেন। পরে মন্ত্রী আখাউড়া প্রবীণ হিতৈষী সংঘের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আখাউড়া পৌর এলাকার রাধানগরের বাসিন্দা মধু সুদন পালের জন্মশত বার্ষিকীর কেক কাটলেন। সেখান থেকে মন্ত্রী কসবা উপজেলায় যান।