বাঙালি কখনো ভয় পায় না : ড. কামাল হোসেন

সিনিয়র রিপোর্টার: জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ড. কামাল হোসেন বলেছেন, যারা মনে করেন, আমাদের ভয় দেখালে আমরা ভয় পেয়ে যাব, এটা ভুল ধারণা। বাঙালি ভয় পায় না।

সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ (বিএসপিপি) আয়োজিত ‘জাতীয় সংসদ নির্বাচন ও পেশাজীবীদের করণীয়’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ৩০ তারিখে আমাদের সকাল সকাল ভোট কেন্দ্রে যেতে হবে, ভোট দিতে হবে। শুধু ভোট দিলেই হবে না, ভোট পাহারা দিতে হবে।

আইজি, এডিশনাল আইজির উদ্দেশে ড. কামাল হোসেন বলেন, অন্যায় আদেশ পালন করা অপরাধ। আপনারা বলে দিন, কোনো বেআইনি আদেশ পালন করবেন না। পুলিশ মুক্তিযুদ্ধের অনুসারী, তাদের অনুসারী হিসেবে বেআইনি আদেশ মানবেন না।
কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বলেন, আজকে সেনাবাহিনী মাঠে নেমেছে। তাদের কাছে মানুষ কিছুই চায় না, শুধু চায় নিরাপদে ভোট দিতে। যদি সেনাবাহিনী তার নীতি নৈতিকতা বজায় রাখতে পারে, তবে বাংলাদেশে ভোট বিপ্লব হবে।
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, এ নির্বাচন আমরাই দাবি করেছি। আমরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব, এটা সরকার মেনে নিতে পারছে না। এখন চাপ সৃষ্টি করছে, যাতে আমরা নির্বাচন থেকে সরে যাই। আমরা নতি স্বীকার করব না। নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব এবং যেকোনো মূল্যে নির্বাচনে থাকব।
সেনাবাহিনী প্রসঙ্গে নজরুল ইসলাম খান বলেন, তারা আজ মাঠে নামছে। তারা বিদেশের মাটিতে অনেক সুনাম অর্জন করেছে। আমরা এতদিন শুনেছি এবং খুশি হয়েছি। আজ আমরা দেখতে চাই। তাদের কার্যক্রম দেখে আমরা আরো খুশি হতে চাই।
পেশাজীবী পরিষদের সভাপতি শওকত মাহমুদের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন- কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি ও ঢাকা-৬ আসনে ধানের শীষের প্রার্থী সুব্রত চৌধুরী, ঢাকা-৭ আসনে ধানের শীষের প্রার্থী মোস্তফা মহসীন মন্টু, ঢাকা ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রুহুল আমিন গাজী প্রমুখ।