ঢাকা-১০ : মাঠে সরব তাপস, নামেননি মান্নান

ঢাকা-১০ আসনের বিএনপি প্রার্থী আবদুল মান্নান (ধানের শীষ) এখনও নির্বাচনী প্রচারণায় নামেননি। আর শেখ ফজলে নূর তাপস গত ১০ ডিসেম্বর থেকে নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন।

আবদুল মান্নান বলছেন, ‘প্রচারণা লাগবে না। ধানের শীষ মানুষের হৃদয়ে গাঁথা। এ মার্কায় প্রার্থীর পরিচিতিও লাগে না। মানুষ ভোট দেয়ার সুযোগ পেলে ১০০ ভাগ জয় হবে।’

ধানমন্ডি, হাজারীবাগ, কলাবাগান এবং নিউমার্কেট এলাকা নিয়ে ঢাকা-১০ আসন। এ আসনে মোট প্রার্থী ছয়জন। তবে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন দুজন। আওয়ামী লীগের শেখ ফজলে নূর তাপস (নৌকা) ও বিএনপির আবদুল মান্নান (ধানের শীষ)।

আবদুল মান্নান বলেন, ‘সোমবার থেকে প্রচারণায় নামবো। আমরা আগে থেকেই প্রচারে নামতে চেয়েছিলাম কিন্তু নানাভাবে আমাদের কর্মীদের হুমকি ধামকি দেয়া হচ্ছে। তাদের প্রচার চালাতে দেয়া হচ্ছে না। কোনো পোস্টার লাগাতে পারছি না আমরা। নেতাকর্মীদের মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে ক্ষমতাসীন দলের লোকরা। পুলিশকে দিয়ে আমাদের কর্মীদের ধরিয়ে দেয়া হচ্ছে। এ ব্যাপারে আমরা থানায় অভিযোগ করেছি। নির্বাচন কমিশনেও লিখিত অভিযোগ জানিয়েছি, কিন্তু কোনো প্রতিকার পাচ্ছি না। তাই বলে হাল ছাড়বো না। জয় আমাদের হবে ইনশাল্লাহ।

১০ ডিসেম্বর থেকেই এই আসনে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে অস্থায়ী নির্বাচনী ক্যাম্প বসিয়েছে আওয়ামী লীগ। চলছে ছোট ছোট মিছিল। প্রচার শুরুর পর থেকেই মাঠে নেমেছেন তাপস নিজেও। প্রতিদিনই বিভিন্ন এলাকায় ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন তিনি। এ ছাড়া পাড়া-মহল্লায় বৈঠক করছেন তিনি। কার নির্বাচনী এলাকায় ওলিতে-গলিতে পোস্টারেরও ছড়াছড়ি।

তাপসের নির্বাচনী এলাকায় মাইকে আওয়ামী লীগ ও ফজলে নূর তাপসের করা উন্নয়ন নিয়ে বাজানো হচ্ছে গান। ভ্যানের ওপরে ডিজিটাল স্ক্রিনে গানের সঙ্গে ছবিও ভেসে উঠছে। ভোটারদের মধ্যে বিলি করা হচ্ছে নৌকার লিফলেট। এসব লিফলেটে আগামী নির্বাচনে জিতলে এলাকার উন্নয়নে কী কী করবেন, তার বর্ণনাও আছে।

তাপস বলেন, নির্বাচনী এলাকায় যানজট নিরসনে মেট্রো রেলের সংযোগ ধানমন্ডির ২৭ নম্বর সড়ক থেকে সায়েন্স ল্যাবরেটরি মোড় হয়ে নিউমার্কেট দিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে। ধানমন্ডি ২ নং সড়ক থেকে নিউমার্কেট পর্যন্ত ফ্লাইওভার নির্মাণ, হাজারীবাগের ট্যানারির খালি জায়গায় মডেল আবাসিক এলাকা নির্মাণ করা হবে। আরও নানা প্রতিশ্রুতি রয়েছে।

তিনি বলেন, ধানমন্ডিতে গ্যাস সমস্যা অনেকটাই সমাধান হয়েছে। বাকি যে সমস্যা আছে, তা আমরা আগামীবার ক্ষমতায় এলে সমাধান করব।

এই আসনের মোট ভোটার তিন লাখ ১৩ হাজার ৭৫৮ জন। ২০০৮ সালে নবম সংসদ নির্বাচনের আগে আসন পুনর্বিন্যাসের পর এটি হয় ঢাকা-১০। ওই নির্বাচনে বিএনপির খন্দকার মাহবুব উদ্দিন আহমেদ ৪৯ হাজার ৬৯ ভোটে হারান তাপস। তখন নৌকায় ভোট পড়ে এক লাখ ১৮ হাজার ১২৯ ভোট। আর ধানের শীষে পড়ে ৬৯ হাজার ৫৪ ভোট।

আবার ২০১৪ সালে দশম সংসদ নির্বাচনে পুনর্বিন্যাসের ফলে এটি হয় ঢাকা-১০ আসন। বিএনপিসহ অন্যান্য রাজনীতি দল নির্বাচন বর্জনের পর দ্বিতীয়বারের মতো জেতেন তাপস।