বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক সাজ্জাদের সন্ধান চায় পরিবার

সুমন দত্ত: আদরের একমাত্র ছেলেকে খুঁজে পাচ্ছে না মা। স্ত্রী হারিয়েছে তার স্বামীকে। সন্তান বাবাকে পাচ্ছে না কাছে। এভাবে দিন কাটছে কুষ্টিয়ার জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ সাজ্জাদ হোসেন সবুজের পরিবারের। বঙ্গবন্ধু আদর্শের এই সৈনিকের পেশা ছিল ঠিকাদারি। পাশাপাশি একটি ইট ভাটা ছিল। তিন বছর ধরে তিনি নিখোঁজ। তার সন্ধান চেয়ে বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন নিখোঁজের পরিবার।

তারা জানায় গত ২১ আগস্ট ২০১৫ থেকে নিখোঁজ সাজ্জাদ। ২০ আগস্ট গাজী পুরের ড্রিম স্কয়ার রিসোর্ট থেকে সাজ্জাদকে র‍্যাব পরিচয়ে কিছু সদস্য তুলে নিয়ে যায়। সেদিন ভোরের দিকে এই ঘটনা ঘটে। সাজ্জাদের সঙ্গে আরো কয়েকজনকে তুলে নিয়ে গিয়েছিল কথিত র‍্যাব সদস্যরা। এরা হলেন ওই রিসোর্টের মালিক মনিরুজ্জামান, স্বেচ্ছাসেবক লীগের আখতারুজ্জামান লাবু। লাবু ও সাজ্জাদ পরস্পরের বন্ধু। পরদিন আমরা সংবাদ সম্মেলন করে লাবু ও সাজ্জাদকে পুলিশে সোপর্দ করার দাবি জানাই। যা গনম্যাধ্যমে সেদিন প্রচার করা হয়েছিল। পরে লাবুকে ছেড়ে দেয়া হলেও সাজ্জাদকে ছাড়া পায়নি। লাবুকে সাজ্জাদ সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে সে কোনো তথ্য দিতে রাজী নয় বলে জানায়। এরপর সাজ্জাদ সম্পর্কে আমাদেরকে নানা রকম বিভ্রান্তিকর তথ্য দেয়া হয়। এতে অনেক সময় নষ্ট হয়।

সাজ্জাদের পরিবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় ও জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের কাছে তার সন্ধানের ব্যাপারে ধর্না দিয়েছে। কিন্তু তারা আজ পর্যন্ত সাজ্জাদের খোজ এনে দিতে পারেনি। অবশেষে তারা এ ব্যাপারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে সাহায্য প্রার্থনা করেছে। পরিবার সদস্যদের আশা প্রধানমন্ত্রী হস্তক্ষেপ করলে তাদের সাজ্জাদ ফিরে আসবে। সাজ্জাদের পরিবারের ফোন ০১৭১১০২৯৬৯৭।